রবিবার মানেই মধ্যবিত্ত বাঙালির পাতে থাকতেই হবে মাংসের ঝোল আর ভাত। তা সে খাসি হোক বা মুরগি। তবে ব্লাড প্রেশার কন্ট্রোলে রাখার জন্য রেড মিট একেবারেই খাওয়া উচিত নয়। তার মধ্যে এর আকাশ ছোঁয়া দাম। তাই বেশিরভাগ মানুষই এখন মুরগি খান। কিন্তু বিশ্বজুড়ে এখন করোনাভাইরাসের আতঙ্কে মুরগি খেতে ভয় পাচ্ছেন অনেকে। তাই রবিবার হলেও অনেক বাড়িতেই রুটিন মেনে ছুটির দিনে মুরগির মাংস হচ্ছে না। ভিড় বাড়ছে খাসির দোকানে । আর ততই চওড়া হয়েছে পাঠার মাংসের ব্যবসায়ীদের হাসি।

মুরগির সঙ্গে  প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসকে কেন্দ্র করে গত কয়েকদিনে নানাবিধ খবর ছড়িয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। যার অধিকাংশই ভিত্তিহীন বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। কিন্তু, সেই গুজবই গিলছেন আম জনতা। সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়েছে,  মুরগি থেকে করোনা ভাইরাস ছড়াচ্ছে। কিছু  ভিডিও-ও  ভাইরাল করা  হয়েছে। যা দেখে সাধারণ মানুষ  আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে পড়েছেন। গুজবের জেরে শেষ তিন সপ্তাহে রাজ্যে মুগির বিক্রি কমেছে ৪০ শতাংশ। 

আরও পড়ুন: ভারতীয় সনাতনী পোশাক চলবে না, দিল্লির রেস্তোরাঁয় এন্ট্রি পেলেন না তরুণী, ভাইরাল হল ভিডিও

রবিবার সাধারণত শহর কলকাতার মুরগির মাংসের দোকানের বাইরে দেখা যায় লম্বা লাইন। তবে গত রবিবার অধিকাংশ দোকানেই ভিড় ছিল উধাও। তবে মুগরির মাংস থেকে কোনও ভাবেই করোনা ভাইরাস ছড়াতে পারে না। এমনকী মুরগির শীররেও এই ভাইরাস থাবা বসাতে পারে না। বলেই জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।

আরও পড়ুন: করোনা আক্রান্ত দেশ থেকে ফিরে পঞ্জাবে নিখোঁজ ৩৩৫, নাগপুরে আইসোলেশন ওয়ার্ড থেকে পালাল ৫

মুরগির মাংসে করোনাভাইরাস রয়েছে  বিষয়টি সম্পূর্ণভাবে গুজব বলছেন পশু চিকিৎসকরা। করোনাভাইরাস কোনও অবস্থাতেই মুগরি শরীরে বাসা বাঁধতে পারে না বলে জানিয়েছেন তঁরা।   বিশেষজ্ঞ পশু চিকিৎসকরা পরামর্শ দিচ্ছেন, 'কোনও ভয় নেই, নিরাপদে খান মুরগির মাংস।' 

আরও পড়ুন: ভারতীয় সনাতনী পোশাক চলবে না, দিল্লির রেস্তোরাঁয় এন্ট্রি পেলেন না তরুণী, ভাইরাল হল ভিডিও

তাই রিববাসরীয় ভোজে মুরগির মাংস খেতে কোনও বাধা নেই মধ্যবিত্ত বাঙালির। তবে রান্নার আগে কিছু নিয়ম মানতে হবে।
বিশেষজ্ঞদের মতে,
১. মাংস কেনার পর খুব ভাল করে ধুয়ে নিতে হবে।
২. অসুস্থ মুরগি বুঝলে তা কিনবেন না। করোনাভাইরাস না ছড়ালেও অন্য অসুখ গানা বাঁধতে পারে এত।
৩. রান্নার সময় ভাল করে সেদ্ধ করতে হবে।
৪. প্যাকেটজাত মাংস বা ফুড চেনে কিনতে পাওয়া যায় যে সব মাংস, সে সবে প্রিজারভেটিভ মেশানো থাকে। করোনার ভয়ে নয়, প্রিজারভেটিভ থেকে হওয়া ক্ষতি আটকাতেই এ সব মাংস খাওয়া উচিত নয়।

তাই মুরগি থেকে করোনার কোনও ভয় নেই। কাজেই এই রবিবার ভাল করে সেদ্ধ করে নিশ্চিন্তে জমিয়ে মাংস খান।