শিশু মানেই বাড়তি যত্নের প্রয়োজন। ছোট বাচ্চাদের ক্ষেত্রে তা যেন একটু বেশিই দরকার হয়। জন্ম থেকেই শিশুর বিকাশে প্রয়োজন মাতৃদুগ্ধ। শিশুর ওজন দেখেই শিশুর সুস্থতা নির্ণয় করা হয়। কিন্তু আপনার শিশু হঠাৎই যদি অসুস্থ হয়ে পড়ে, আমরা বুঝতে পারি না কেন বা কীসের থেকে শিশুর এমন হচ্ছে। শিশুর জন্য একটি বড় সমস্যা হল ডিহাইড্রেশন। কীভাবে বুঝবেন আপনার ছোট্ট সোনাটির ডিহাইড্রেশন হয়েছে, রইল তার কিছু সহজ উপায়।

আরও পড়ুন-শীতকালীন কিছু সমস্যা ও তার সহজ সমাধান...

শিশু যখন ন কাঁদে তখন কান্নার সময় চোখ দিয়ে জল বেরোচ্ছে না। এটা ডিহাইড্রেশনের একটি বড় লক্ষণ। শিশুর শরীরে জলের ঘাটতি হলেই শিশুর কান্নার সময় চোখ দিয়ে জল পড়ে না।

শিশুর শরীরে জলের ঘাটতি হয়েছে কিনা তা বোঝার জন্য ঠোঁট এবং মুখের চারপাশে কোনও শুষ্কতা রয়েছে কিনা তা লক্ষ করুন। 

ডিহাইড্রেশনের কারণে হাত ও পা অস্বাভাবিক গরম বা ঠান্ডা হয়ে যেতে পারে।

আরও পড়ুন-সময় বাঁচিয়ে লাঞ্চে রাখুন ভরপুর পুষ্টি, বেছে নিন স্বাস্থ্যকর এই পদগুলি...

শিশুর টয়লেট ঠিকমতো হচ্ছে কিনা তা খেয়াল রাখুন। কম টয়লেট হলে তাহলেই বুঝবেন আপনার সন্তানের শরীরে জলের ঘাটতি হয়েছে।  শরীরে জলের ঘাটতি হলেও প্রস্রাব হলুদ রঙের হবে।

ডিহাইড্রেশন হলে শিশু আগের চেয়ে ঝিমিয়ে পড়বে। দিনের বেশিরভাগ সময় সে ঘুমিয়ে কাটাবে। এই ধরনের প্রবণতা দেখলে এখন থেকেই সাবধান হয়ে যান।

শিশুর শরীরে জল কম থাকলে সে এমনিতেই খিটখিটে হয়ে যাবে। শিশু সবসময় কাঁদবে। খেতে চাইবে না। আর জোর করলে অতিরিক্ত কান্নাকাটি করলে তা থেকেও আরও বেশি সমস্যা হতে পারে।