ত্বক  নিয়ে  আমরা প্রত্যেকেই নাজেহাল। কোনও না সমস্যা যেন আমাদের লেগেই রয়েছে। ত্বক অনেক ধরনের হয়। কারোর রুক্ষ্ম, তো কারোর তৈলাক্ত। ত্বকের যত্ন নেওয়ার আগে সবার আগে নিজের ত্বকের ধরণ জানা দরকার। নিজের ত্বকের ধরণ না জেনেই আমরা বিভিন্ন জিনিস ব্যবহার করে থাকি। আর এই কারণেই ত্বকের নানা ধরনের সমস্যা বেড়ে যায় আর ত্বকের জেল্লাও কমে যায়। বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ত্বকের সৌন্দর্যও কেমন ফিকে হয়ে যায়। ত্বকের সেই পুরোনো জেল্লা ফিরিয়ে আসতে মাথায় রাখুন কিছু টিপস।

আরও পড়ুন-কী করে করোনার হাত থেকে রক্ষা করবেন আপনার বাড়ির বয়স্ক সদস্যদের, রইল তারই টিপস...


ক্লিনজিং, টোনিং, ময়েশ্চারাইজিং মাস্ট। ঘুম থেকেই উঠেই ফেসওয়াশ দিয়ে মুখ পরিস্কার করুন। এক ব্র্যান্ডের ফেসওয়াশ বেশি ব্যবহার করবেন না। নিজের ত্বকের গঠন বুঝে ফেসওয়াশ ব্যবহার করুন।

তারপর মুখ ধোওয়া হয়ে গেলে টোনার লাগিয়ে নিন। তারপর  ভাল কোনও ব্র্যান্ডের ময়েশ্চারাইজার লাগিয়ে নিন।

রোদে বেরোনোর সময় অবশ্যই মুখে সানস্ক্রিন মেখে বেরান।  কড়া রোদে সানক্রিন না লাগিয়ে বেরোলে ত্বকের ক্ষতি হবে। এমনকী মেঘলা দিনেও সানস্ক্রিন মেখে বেরোবেন।

আরও পড়ুন-করোনা আতঙ্কে সচেতনতা বাড়াতে গুগলের বিশেষ 'ডুডল' ভিডিও...

প্রত্যেক মাসে একবার করে ম্যাসাজ করান। এতে ত্বকের পরিচর্যা হবে।

বাইরে থেকে এসে অবশ্যই হাত, পা ভাল করে ধুয়ে নিন। বাইরের ধুলো, বালি, ময়লা ত্বকের ক্ষতি করে।

মাথার বালিশ পরিস্কার রাখুন। সপ্তাহে দুই-তিনদিন অন্তর বালিশ রোদে দিন। বালিশের  কভার মাঝেমধ্যেই পরিস্কার করে নিন।

প্রতিদিন পর্যাপ্ত পরিমাণে জল খান। জল শরীর থেকে অনেক দূষিত পদার্থ বের করে দেয়।

খাবারে অতিরিক্ত নুন একদমই দেবেন না। বেশি পরিমাণ নুন শরীরে ব্লাড প্রেসারের সমস্যা করে তা নয়, বরং চুল ও ত্বকের ক্ষতি করে। খাবার পাতে বাড়তি নুন একদম খাবেন না।


ডেট এক্সপায়ার হওয়া মেক আপ কখনওই মুখে মাখবেন না। এই ধরনের মেক আপে ব্যাকটেরিয়া খুব সহজেই বৃদ্ধি পায়। তাই ভাল ব্র্যান্ডের মেক আপ ব্য়বহার করুন। 

মুখে ব্রণর সমস্যা থাকলে বুঝেশুনে প্রোডাক্ট ব্যবহার করুন। নিজের স্কিন বুঝে মেকআপ নির্বাচন করুন।