এ ভুল যে-সে ভুল নয়, মুখ ফসকে এমন ভুল করলেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান, যার জেরে নেটিজেনদের কাছে ট্রোলের শিকার হতে হল তাঁকে। রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারণ সভার ৭৪ তম অধিবেশনে বক্তব্য পেশ করার সময়েই করলেন সেই চরম ভুল। মুখ ফসকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে, 'প্রেসিডেন্ট মোদী' বলে সম্বোধন করলেন তিনি। 

এই মন্তব্যের পরেই পাক প্রধানমন্ত্রীকে এক হাত নিল নেটিজেনরাই। কারওর কথায়, প্রধানমন্ত্রীকে বিশেষ সম্মান প্রদর্শন করতেই হয়তো তিনি এমন মন্তব্য করেছেন। তবে আলটপকা মন্তব্য করে ট্রোলের শিকার তিনি এই প্রথমবার হননি, বরং এর আগেও ভুল মন্তব্য করে সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোলের শিকার হয়েছেন তিনি। এপ্রিল মাসে তেহরানে আয়োজিত একটি যুগ্ম সাংবাদিক সম্মেলনে ইমরান খান মন্তব্য করেছিলেন, জার্মানি এবং জাপান একই সীমান্ত ভাগ করে। এই মন্তব্যের পর একইভাবে ট্রোলের শিকার হন পাক প্রেসিডেন্ট। 

আরও পড়ুন- মন্দিরে নিষিদ্ধ পশু-পাখির বলি, ঐতিহাসিক রায় দিল ত্রিপুরা হাইকোর্ট

আরও পড়ুন- আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে সমাদৃত স্বচ্ছ ভারত অভিযান, 'গ্লোবাল গোলকিপার' পুরস্কার পেলেন নমো

আরও পড়ুন- বিরাট দুর্ঘটনার কবলে প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর কনভয়, ঘটনাস্থলে মৃত ২, ৩ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক

আরও পড়ুন- চন্দ্রপৃষ্ঠে হার্ড ল্যান্ডিং হয়েছে বিক্রমের, টুইট করে ল্যান্ডারের অবতরণের স্থান প্রকাশ নাসার

প্রত্যেক রাষ্ট্রনেতার জন্য বরাদ্দ সময়ের থেকে প্রায় দ্বিগুণ সময় নিয়ে কেবলই ভারতের বিরুদ্ধে আক্রমণই শানিয়ে গেলেন পাক প্রধানমন্ত্রী। উপত্যকায় বসবাসকারী সাধারণ মানুষের সমস্যা এমনকী কেন্দ্রে বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধেও তোপ দাগেন ইমরান। অন্যদিকে প্রধানমন্ত্রী মোদী কিন্তু ইমরান সরকারকে সরাসরি আক্রমণ করেননি। আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে ভারত কী কী উদাহরণ রেখেছে সেই বিষয়ে বিশেষভাবে  আলোকপাত করেছিলেন মোদী। মোদীর মুখে আপামোর শান্তির বার্তাই শোনা গিয়েছিল। অন্যদিকে কেবল ভারতকে তুলোধনা করতে গিয়েই নির্ধারিত সময় থেকে বেশি সময় নিয়ে ভারতের বিরুদ্ধে আক্রমণ শানিয়ে ট্রোলের শিকার হলেন ইমরান।