মেহদি হাসান মিরাজের অসাধারণ লড়াই, ভারতের বিরুদ্ধে প্রথম ওডিআই জিতল বাংলাদেশ

| Dec 04 2022, 07:43 PM IST

bangladesh
মেহদি হাসান মিরাজের অসাধারণ লড়াই, ভারতের বিরুদ্ধে প্রথম ওডিআই জিতল বাংলাদেশ
Share this Article
  • FB
  • TW
  • Linkdin
  • Email

সংক্ষিপ্ত

রবিবার ভারত-বাংলাদেশ ওডিআই সিরিজের প্রথম ম্যাচে উত্তেজক লড়াই দেখা গেল। দুর্দান্ত লড়াই করলেন বাংলাদেশের মেহদি হাসান মিরাজ। তাঁর এই লড়াইয়ের সুবাদেই দুর্দান্ত জয় পেল বাংলাদেশ। 

মেহদি হাসান মিরাজের অসাধারণ ব্যাটিংয়ের সুবাদে ভারতের বিরুদ্ধে সিরিজের প্রথম ওডিআই ম্যাচে জয় পেল বাংলাদেশ। ভারতকে ১ উইকেটে হারিয়ে সিরিজে ১-০ এগিয়ে গেল বাংলাদেশ। ১৮৭ রানের টার্গেট তাড়া করতে নেমে ১৩৬ রানে ৯ উইকেট খুইয়ে বসে বাংলাদেশ। সেই পরিস্থতিতে মুস্তাফিজুর রহমানকে নিয়ে লড়াই শুরু করেন মেহদি। তিনি ৩৮ রানে অপরাজিত থাকেন। মুস্তাফিজুর ১০ রানে অপরাজিত থাকেন। ভারতের বিরুদ্ধে ওডিআই ম্যাচে শেষ উইকেট জুটিতে সর্বোচ্চ পার্টনারশিপ গড়ে জয় পেল বাংলাদেশ। ৯ উইকেট হারানোর পর বাংলাদেশ যে এভাবে ঘুরে দাঁড়িয়ে জয় পাবে, সেটা কেউই ভাবতে পারেননি। মেহদি অসাধারণ লড়াই করলেন। তিনি ৪টি বাউন্ডারি ও ২টি ওভার বাউন্ডারি মারেন। মুস্তাফিজুরও ২টি বাউন্ডারি মারেন। এই জুটি ভাঙতে পারল না ভারতের বোলিং লাইনআপ। তার ফলেই প্রথম ওডিআউ হেরে সিরিজে পিছিয়ে পড়তে হল ভারতীয় দলকে। লিটন দাসের নেতৃত্বে প্রথম ম্যাচেই জয় পেল বাংলাদেশ।

এদিন ঢাকার শেরে বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে টসে জিতে প্রথমে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেন বাংলাদেশের অধিনায়ক লিটন। প্রথমে ব্যাটিং করতে নেমে বড় স্কোর করতে ব্যর্থ হয় ভারতীয় দল। কে এল রাহুল ছাড়া আর কোনও ব্যাটারই বড় রান পাননি। ৫ নম্বরে ব্যাটিং করতে নেমে রাহুল ৭০ বলে ৭৩ রান করেন। তাঁর ইনিংসে ছিল ৫টি বাউন্ডারি ও ৪টি ছক্কা। ভারতের অধিনায়ক রোহিত শর্মা ওপেন করতে নেমে ২৭ রান করেন। অপর ওপেনার শিখর ধাওয়ান করেন ৭ রান। বিরাট কোহলি মাত্র ৯ রান করেই আউট হয়ে যান। শ্রেয়াস আইয়ার করেন ২৪ রান। ওয়াশিংটন সুন্দর করেন ১৯ রান। মহম্মদ সিরাজ করেন ৯ রান। ৪১.২ ওভারে ১৮৬ রানে অলআউট হয়ে যায় ভারতীয় দল। বাংলাদেশের হয়ে ৩৬ রান দিয়ে ৫ উইকেট নেন শাকিব আল-হাসান। ৪৭ রান দিয়ে ৪ উইকেট নেন ইবাদত হোসেন। ৪৩ রান দিয়ে ১ উইকেট নেন মেহদি। 

Subscribe to get breaking news alerts

রান তাড়া করতে নেমে প্রথম বলেই নাজমুল হোসেন শান্তর উইকেট হারায় বাংলাদেশ। ৩ নম্বরে ব্যাটিং করতে নামা আনামুল হকও (১৪) বেশিক্ষণ ক্রিজে টিকে থাকতে পারেননি। ২৬ রানে ২ উইকেট হারানোর পর শাকিবকে নিয়ে লড়াই শুরু করেন লিটন। তিনি করেন ৪১ রান। শাকিব করেন ২৯ রান। দুর্দান্ত ক্যাচ নিয়ে শাকিবকে ফেরান বিরাট। এরপরেই নিয়মিত ব্যবধানে উইকেট হারাতে থাকে বাংলাদেশ। মাহমুদুল্লাহ (১৪), মুশফিকুর রহিম (১৮), আফিফ হোসেন (৬), ইবাদত (০), হাসান মাহমুদরা (০) আউট হয়ে যাওয়ার পর যখন সবাই ধরে নিয়েছিলেন বাংলাদেশ এই ম্যাচ হারছে, তখনই ম্যাচেং রং বদলে দিলেন মেহদি। শার্দুল ঠাকুরের বলে মেহদির ক্যাচ ফস্কান রাহুল। এরপর আর কোনও সুযোগ দেননি মেহদি। তিনি দলকে জিতিয়েই মাঠ ছাড়লেন। 

আরও পড়ুন-

পাকিস্তানের বিরুদ্ধে বাঁ হাতে ব্য়াটিং! রাওয়ালপিন্ডি টেস্টে চমক জো রুটের

সুপারমার্কেটের কর্মীদের সঙ্গে বচসা, সোশ্যাল মিডিয়ায় নিন্দার মুখে রাজেশ্বরী গায়কোয়াড়

নিরপেক্ষ কেন্দ্রে সরানো হলে এশিয়া কাপ খেলবে না পাকিস্তান, হুমকি রামিজ রাজার