বিশ্ব কুস্তি চ্যাম্পিয়নশিপে আর সোনার পদক জেতা হল না তরুণ ভারতীয় কুস্তিগীর দীপক পুনিয়ার। চোটের জন্য পুরুষদের ৮৬কেজি বিভাগের ফাইনাল বাউট থেকে নাম তুলে নিলেন তরুণ ভারতীয় কুস্তিগীর। শনিবারই সেমিফাইনল জিতে সোনার পদকের আশা উস্কে দিয়েছিলেন দীপক। কিন্তু ফাইনাল বাউটে তাঁর নামা হচ্ছে না। তাই সোনার পদকের আশা জাগিয়েও রুপোর পদক নিয়েই সন্তুষ্ট থাকছে হচ্ছে  ২০ বছরের তরুণ এই কুস্তিগীরকে। ফাইনালে ইরানের হাসান ইয়াজদানির মুখোমুখি হওয়ার কথা ছিল ভারতীয় দীপকের। কিন্তু কোনও লড়াই ছাড়াই সোনার পদক পেতে চলেছেন ইরানের কুস্তিগীর। 

আরও পড়ুন - বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপ ভুলে অমিতের ফোকাসে এবার টোকিও অলিম্পিক

প্রথম বাউটের সময়ই পায়ে চোটে পেয়েছিলেন দীপক পুনিয়া। ফাইনাল থেকে নাম প্রত্যাহার করে দীপক জানিয়েছেন, ‘প্রথম বাইটের সময়েই আমি বাঁ পায়ে চোট পেয়েছিলাম আমি। এখনও আমার পায় ফুলে রয়েছে। ভেবেছিলাম ফাইনালে ম্যাচের আগে ফিট হয়ে উঠব, কিন্তু সেটা আর হল না। দেশের জন্য সোনার পজক জয়ের আশা ছিল, কিন্তু সেটা হচ্ছে না। চোটটা একজন খেলোয়াড়ের জীবনের অঙ্গ। অলিম্পিকের যোগ্যতা অর্জন করে আমি গর্বিত। আর কথা দিচ্ছি টোকিওতে আমি দেশেক নিরাশ করব না।’

আরও পড়ুন - মেসি না রোনাল্ডো, দুই তারকার মধ্যে নিজের পছন্দ বেছে নিলেন উসেইন বোল্ট

২০ বছরের দীপ ফাইনালে সোনা জিততে পারলে এক অনন্য নজির গড়তে পারতেন। কারণ এরা আগে ক্যাডেট ও জুনিয়র বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে সোনার পদক জিতেছিলেন ভারতীয় কুস্তিগীর। এবার সোনা পেলে সেটা হল তাঁর হ্যাটট্রিক। কিন্তু দীপকের চোট সেটা হতে দিল না। তরুণ খেলোয়াড়ের চোটের অবস্থা দেখে তাঁর কোচও আর ঝুঁকি নিতে চাননি। কারণ অলিম্পিকের টিকিট পাকা হয়ে গেছে, এই অবস্থায় জোর করে ফাইনালে খেললে আরও বড় সমস্যা তৈরি হতে পারে। তাই নাম তুলে নেওয়াটাকেই এই মুহূর্তে সঠিক সিদ্ধান্ত বলেই মনে করছেন দীপকের সাপোর্ট স্টাফরা। 
আরও পড়ুন - বড় ব্যবধানে জয় ম্যানসিটির, লালিগায় ব্যর্থ মেসি সিরিএতে জয় রোনাল্ডোদের