কানাডার গোলকিপারের নামে আপত্তিকর ব্যানার, ক্রোয়েশিয়ার সমর্থকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা ফিফার

| Nov 30 2022, 01:22 AM IST

Spain defeat Croatia by 5-3 goals and qualify for quarter final of euro 2020 spb
কানাডার গোলকিপারের নামে আপত্তিকর ব্যানার, ক্রোয়েশিয়ার সমর্থকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা ফিফার
Share this Article
  • FB
  • TW
  • Linkdin
  • Email

সংক্ষিপ্ত

বিশ্বকাপ চলাকালীন ক্রোয়েশিয়ার সমর্থকদের বিরুদ্ধে গ্যালারি থেকে আপত্তিকর স্লোগান দেওয়া এবং ব্যানার প্রদর্শন করার অভিযোগ উঠল। এই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে ফিফা।

ফিফার পক্ষ থেকে সবসময় ফুটবল মাঠে বর্ণবিদ্বেষ, জাতিবিদ্বেষ যে কোনও ধরনের বৈষম্যের বিরুদ্ধে বার্তা দেওয়া হয়। বিশ্বকাপে সব দলের অধিনায়কের আর্মব্যান্ডেও সেই বার্তাই আছে। কিন্তু বিশ্বকাপ চলাকালীন কাতারের স্টেডিয়ামে দর্শকদের একাংশের বিরুদ্ধে আপত্তিকর আচরণ করার অভিযোগ উঠল। ক্রোয়েশিয়া-কানাডা ম্যাচ চলাকালীন এই ঘটনা ঘটে। ক্রোয়েশিয়ার সমর্থকদের বিরুদ্ধে আপত্তিকর আচরণের অভিযোগ উঠেছে। ক্রোয়েশিয়ার ফুটবল ফেডারেশনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ফিফা এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে কড়া ব্যবস্থা নিচ্ছে। কানাডার গোলকিপার মিলান বোরয়ানকে আক্রমণ করে গ্যালারি থেকে যে ধরনের স্লোগান দেওয়া হয় এবং ব্যানার তুলে ধরা হয়, সেটা ফিফা কোনওভাবেই বরদাস্ত করছে না। সেই কারণেই ক্রোয়েশিয়ার সমর্থকদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। কী ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হবে, সেটা এখনও জানা যায়নি। তবে ফিফা এই ধরনের ঘটনার ক্ষেত্রে কঠোর ব্যবস্থাই নিয়ে থাকে। ক্রোয়েশিয়ার সংশ্লিষ্ট সমর্থকদের চিহ্নিত করে বিশ্বকাপ চলাকালীন স্টেডিয়ামে প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হতে পারে।

ক্রোয়েশিয়ার বিরুদ্ধে ম্যাচের ৬৮ সেকেন্ডেই দুরন্ত হেডে গোল করে কানাডাকে এগিয়ে দেন আলফন্সো ডেভিস। কিন্তু শেষপর্যন্ত ৪-১ গোলে জয় পায় ক্রোয়েশিয়া। পরপর ২ ম্যাচ হেরে কানাডা ১ ম্যাচ বাকি থাকতেই বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে গিয়েছে। তাদের আর নক-আউটে যাওয়ার কোনও সুযোগ নেই। কিন্তু ক্রোয়েশিয়ার বিরুদ্ধে কানাডার হারের চেয়েও বড় হয়ে দেখা দিয়েছে দর্শকদের আচরণ। কানাডার গোলকিপার বোরয়ানের জন্ম ক্রোয়েশিয়ায়। তিনি সার্বিয়ান বংশোদ্ভূত। কিন্তু ছোটবেলাতেই পরিবারের লোকজনের সঙ্গে তিনি দেশ ছেড়ে পালিয়ে যান। সেই সময় ক্রোয়েশিয়ার স্বাধীনতার দাবিতে লড়াই চলছিল। সেই অশান্ত সময়েই পরিবারের সঙ্গে দেশ ছাড়েন বোরয়ান। সে কথা উল্লেখ করেই তাঁকে আক্রমণ করেন ক্রোয়েশিয়ার সমর্থকরা। ১৯৯৫ সালে সামরিক অভিযানের কথা উল্লেখ করে একটি ব্যানার তুলে ধরেন ক্রোয়েশিয়ার সমর্থকরা।

Subscribe to get breaking news alerts

১৯৯৫ সালে ২ লক্ষেরও বেশি সার্বিয়ান বংশোদ্ভুত ব্যক্তি ক্রোয়েশিয়া ছেড়ে পালিয়ে যান। তাঁদের মধ্যে বোরয়ানের পরিবারও ছিল। এ বছরের এপ্রিলে একটি সাক্ষাৎকারে এই গোলকিপার বলেন, তাঁর জন্ম ক্রোয়েশিয়ায় হয়নি। সার্বিয়ানদের দখলে থাকা অঞ্চলেই তিনি জন্মান। তাঁর জন্মের ৪ বছর পর সেই অঞ্চল দখল করে নেয় ক্রোয়েশিয়া। এই সাক্ষাৎকারে পরেই বোরয়ানের উপর ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছেন ক্রোয়েশিয়ানরা। সে কারণেই গ্যালারি থেকে তাঁকে আক্রমণ করা হল। তবে যে কারণই হোক না কেন, ফিফা দর্শকদের এই আচরণ বরদাস্ত করছে না।

আরও পড়ুন-

প্রথম ম্যাচ হারের পর টানা ২ জয়, বিশ্বকাপের নক-আউটে পৌঁছে গেল সেনেগাল

গ্রুপের শেষ ম্যাচে কাতারের বিরুদ্ধে ২-০ গোলে জয়, নক-আউটে নেদারল্যান্ডস

এবারের বিশ্বকাপে আর করিম বেঞ্জেমাকে দলে নেবেন না, জানালেন দিদিয়ের দেশঁ

 
Read more Articles on