Asianet News BanglaAsianet News Bangla

করোনা সংক্রমণ রুখতে চলছে সতর্কতামূলক প্রচার, উত্তরপাড়ার ৭টি ওয়ার্ডে কনটেনমেন্ট জোন

করোনা দমনে যথেষ্ট সক্রিয় প্রশাসন। বাসিন্দাদের সতর্ক করতে মাইকে করে প্রচার করা হচ্ছে। বাজার এলাকায় ঘুরে ঘুরে প্রচার করছেন পুরসভার কর্মীরা। এমনকী, মাস্ক না পরলে করা হচ্ছে গ্রেফতার।

7 wards of uttarpara municipality identified as containment zone bmm
Author
Kolkata, First Published Oct 25, 2021, 8:43 AM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

দুর্গাপুজো শেষ হওয়ার পরই রাজ্যে ফের বাড়ছে করোনার সংক্রমণ। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৯৮৯জন। তার মধ্যে শুধুমাত্র কলকাতায় আক্রান্ত হয়েছেন ২৭৩জন। কলকাতার পাশাপাশি হুগলিতেও বাড়ছে সংক্রমণ। আর তার জেরেই একদিনে হুগলির উত্তরপাড়া পুরসভার ৭টি ওয়ার্ডকে কনটেনমেন্ট জোন হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় হুগলিতে আক্রান্ত হয়েছেন ৮৯ জন।

করোনা দমনে যথেষ্ট সক্রিয় প্রশাসন। বাসিন্দাদের সতর্ক করতে মাইকে করে প্রচার করা হচ্ছে। বাজার এলাকায় ঘুরে ঘুরে প্রচার করছেন পুরসভার কর্মীরা। এমনকী, মাস্ক না পরলে করা হচ্ছে গ্রেফতার। তারপর তাঁদের থেকে জরিমানা আদায় করছে চন্দননগর কমিশনারেট। কিন্তু, তা সত্ত্বেও এখনও বহু মানুষকে মাস্ক না পরেই রাস্তায় ঘুরতে দেখা যাচ্ছে। তা কড়া হাতে দমন করছে প্রশাসন। মাস্ক না পরায় উত্তরপাড়া ও ডানকুনি থেকে ইতিমধ্যেই বিপুল পরিমাণ মানুষকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তা সত্ত্বেও সাধারম মানুষের হুঁশ ফিরছে না।

আরও পড়ুন- ম্যালেরিয়ায় আক্রান্ত রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়, চিকিৎসা চলছে দিল্লিতে

উত্তরপাড়া-কোতরং পুরসভার প্রশাসকমণ্ডলীর চেয়ারম্যান দিলীপ যাদব জানিয়েছেন, করোনা আক্রান্ত পরিবারগুলিকে সহযোগিতা করা হচ্ছে। এছাড়া কনটেনমেন্ট জোনে সতর্কতামূলক প্রচারও জোর দেওয়া হচ্ছে। পাশাপাশি কড়াকড়ি করা হয়েছে নাইট কারফিউ। 

করোনা নিয়ন্ত্রণে শনিবার কলকাতার নগরপাল সহ বিভিন্ন জেলার জেলাশাসক ও পুলিশ কর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন মুখ্যসচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদী (Hari Krishna Dwivedi)।  সেই বৈঠকে কলকাতায় কঠোরভাবে করোনা সংক্রান্ত যাবতীয় বিধিনিষেধ প্রয়োগের জন্য পুলিশ কমিশনারকে (Police Commissioner) নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। এছাড়া যে এলাকায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা খুব বেশি পরিমাণে বাড়ছে সেখানে ফের কন্টেনমেন্ট জোন চালু করার নির্দেশও দিয়েছেন। 

আরও পড়ুন- ফাটল অবৈধভাবে মজুত করা বোমা, বিস্ফোরণের তীব্রতায় ভাঙল তৃণমূল কর্মীর বাড়ির ছাদ

দুর্গাপুজোর সময় রাজ্যে করোনার গ্রাফ অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে থাকায় বিধিনিষেধের উপর ছাড় ঘোষণা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। এমনকী, নাইট কারফিউ তুলে দেওয়া হয়েছিল। তার জেরে দ্বিতীয়া থেকেই মণ্ডপে ভিড় জমিয়েছিলেন বহু মানুষ। অবশ্য এর মাশুল যে দিতে হবে তা নিয়ে আগেই সতর্ক করেছিলেন চিকিৎসকরা। আর সেই আশঙ্কার ছবি ধরা পড়ছে স্বাস্থ্য দফতরের পরিসংখ্যানে। 

আরও পড়ুন- অনলাইনে বিজ্ঞাপন দেখে চাকরির আবেদন, নিউটাউনের এই ঘটনার মতো প্রতারিত হতে পারেন আপনিও

জুলাইয়ের পর রাজ্যে ফের একবার এক হাজার ছুঁইছুঁই দৈনিক সংক্রমণ। স্বাস্থ্য দফতরের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে নতুন করে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ১০ জনের। তবে রাজ্য প্রশাসন সবথেকে বেশি চিন্তিত কলকাতাকে নিয়ে। কারণ কলকাতায় একদিনে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ২৭৩। প্রতিদিনই সেই সংখ্যাটা বাড়ছে। জানা গিয়েছে, আক্রান্তদের মধ্যে অনেকেরই করোনা টিকার দু'টি ডোজই নেওয়া রয়েছে। এই তালিকায় কলকাতার পরেই রয়েছে উত্তর ২৪ পরগনা, হাওড়া, হুগলি এবং দক্ষিণ ২৪ পরগনা। আর তাই সংক্রমণের উপর রাশ টানতে রাজ্যে কনটেনমেন্ট জোনের সংখ্যা বাড়ানো হচ্ছে।

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios