Asianet News BanglaAsianet News Bangla

Santipur By Election- বাইরে বের হলেই মেরে ফেলা হবে, প্রাণভয়ে বিজেপি পোলিং এজেন্টেকে তালাবন্দি করে রাখলেন মা

বিজেপির পোলিং এজেন্ট তাপস দাস। শান্তিপুর বিধানসভার বেলঘড়িয়া ১ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের বাহান্নবিঘা এলাকার দায়িত্বে ছিলেন। তাঁর অভিযোগ, শুক্রবার রাতে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা ওই বিজেপি কর্মীর বাড়িতে হামলা চালায়।

Mother locked up her BJP worker son in room due to the fear of TMC goons in Santipur bmm
Author
Kolkata, First Published Oct 30, 2021, 2:19 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

আজব ঘটনা ঘটল শান্তিপুরে (Santipur)। তৃণমূল কর্মী-সমর্থকদের ভয়ে নিজের ছেলেকে গৃহবন্দি (Locked Up) করে রাখলেন মা। বিজেপি প্রার্থীর পোলিং এজেন্টকে (BJP Polling Agent) বাড়িতে গিয়ে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে তৃণমূলের (TMC) বিরুদ্ধে। পরে শান্তিপুরের বিজেপি প্রার্থী (BJP Candidate) নিরঞ্জন বিশ্বাস (Niranjan Biswas) ঘটনাস্থলে গিয়ে তাঁকে ঘর থেকে মুক্ত করেন। যদিও সেই অভিযোগ অস্বীকার করেছে স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব। 

বিজেপির পোলিং এজেন্ট তাপস দাস (Tapas Das)। শান্তিপুর বিধানসভার বেলঘড়িয়া ১ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের বাহান্নবিঘা এলাকার দায়িত্বে ছিলেন। তাঁর অভিযোগ, শুক্রবার রাতে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা (Miscreants) ওই বিজেপি কর্মীর বাড়িতে হামলা চালায়। ঘর বাড়ি ভাঙচুর করে এবং নির্বাচনের দিন বাড়ির বাইরে বের হলে তাঁকে প্রাণে মেরে ফেলারও হুমকি দেওয়া হয়। আর এরএরই তাঁকে ঘরের মধ্যে তালা বন্ধ করে রাখেন পরিবারের সদস্যরা।

আরও পড়ুন- খড়দহে আক্রান্ত তন্ময় ভট্টাচার্য, সিপিএম নেতাকে লক্ষ্য করে ইট ছুড়ল দুষ্কৃতিরা

Mother locked up her BJP worker son in room due to the fear of TMC goons in Santipur bmm

পরিবারের দাবি, এই প্রথম নয় এর আগেও একাধিকবার হুমকি দেয়া হয়েছে তাঁদের। সেই কারণে আজ সকালে আর বাড়ি থেকে বের হননি তাস দাস। তাঁকে ঘরের মধ্যেই বন্দি করে রাখা হয়েছিল। পরে খবর পেয়ে বিজেপি প্রার্থী নিরঞ্জন বিশ্বাস ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই বিজেপি কর্মী ও তাঁর পরিবারের সঙ্গে কথা বলেন। তাপস দাসের মা বলেন, "চোখের সামনে সব কিছু দেখে কীভাবে ছেলেকে বাড়ি থেকে বেরতে দেব?" অভিযোগ অস্বীকার করেছে তৃণমূল। 

আরও দেখুন, Bypoll Live Updates - রাজ্যের চার আসনে শুরু ভোটগ্রহণ, কড়া নিরাপত্তায় চার বিধানসভা  

নিরঞ্জন বিশ্বাস বলেন, "পশ্চিমবঙ্গে তালিবানি শাসন চলছে। বুথ এজেন্টদের বসতে দেওয়া হচ্ছে না। তাঁর কথায়, মধ্যযুগীয় শাসন চলছে। শান্তিপুরকে বাংলাদেশে পরিণত করার চেষ্টা চলছে। এই সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে ভোটবাক্সে জবাব দেবেন মানুষ।"

আরও পড়ুন- খড়দহে বিজেপি প্রার্থীকে গো ব্যাক স্লোগান দেওয়ার অভিযোগ, রিপোর্ট তলব কমিশনের

উপনির্বাচনে একমাত্র নদিয়ার শান্তিপুরে লড়াই হচ্ছে চতুর্মুখী। তৃণমূলের প্রার্থী ব্রজকিশোর গোস্বামী, বিজেপির হয়ে লড়ছেন নিরঞ্জন বিশ্বাস। কংগ্রেস প্রার্থী করেছে রাজু পালকে। আর সিপিএমের প্রার্থী সৌমেন মাহাতো। শান্তিপুর কেন্দ্রের জন্য ২২ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। 

এ দিন বিজেপি প্রার্থী নিরঞ্জন বিশ্বাস নিজেই পরে ২৪০ নম্বর বুথের একজন এজেন্টকে বসানোর ব্যবস্থা করেন। ভোট শুরু হওয়ার পর দীর্ঘক্ষণ বিজেপি এজেন্ট ছিল না ২৪০ নম্বর বুথে। অভিযোগ, ওই বুথে বিজেপি কর্মী তাপস দাসের বসার কথা ছিল। কিন্তু তাঁকে গতকাল রাতে শাসক দলের পক্ষ থেকে ভয় দেখানোর অভিযোগ ওঠে। সেই ভয়ে তাঁকে বাড়িতে আটকে রাখা হয়। ফলে বুথে যেতে পারেননি তিনি। যদিও যাবতীয় অভিযোগ অস্বীকার করেছে তৃণমূল। তাদের দাবি, এই ধরনের কোনও ঘটনা ঘটেনি। মিথ্যে কথা বলে এজেন্টকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। 

আজ রাজ্যের চার বিধানসভা কেন্দ্রে উপনির্বাচন। শান্তিপুরের পাশাপাশি গোসাবা, খড়দহ ও দিনহাটায় ভোটগ্রহণ চলছে। এই চার কেন্দ্রে মোতায়েন রয়েছে মোট ৯২ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী। সকাল ৭টা থেকে শুরু হয়েছে ভোটগ্রহণ। চলবে সন্ধে সাড়ে ৬টা পর্যন্ত। 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios