আইপিএল ২০২০-র শুরুটা একেবারেই ভবাল যাচ্ছে না তিন বারের চ্যাম্পিয়ন দল চেন্নাই সুপার কিংসের। দলের একের পর এক করোনার থাবা। যার কারণে ফের আইসোলেশন যেতে হয়েছে পুরো দলকে। অন্যান্য দল অনুশীলন শুরু করে দিলেও, এখনও হোটেল বন্দি ধোনিরা। তারউপর সুরেশ রায়নার আইপিএল না খেলে দেশে ফেরার সিদ্ধান্ত নেওয়া। সব মিলিয়ে অস্বস্তি ক্রমেই বাড়ছে সিএসকে শিবিরে। যদিও ঠান্ডা মাথায় গোটা দলকে এখনও নিয়ন্ত্রণে রাখার চেষ্টা করছেন এমএস ধোনি। তবে ক্যাপ্টেন কুলও যে বেশ কিছুটা চাপে রয়েছে সেবিষে অস্বীকার করার কোনও জায়গা নেই। কিন্ত অবশেষে কিছুটা স্বস্তি ফিরছে সিএসকে শিবিরে। দলের সঙ্গে যোগ দিতে চলেছেন তারকা স্পিনার হরভজন সিং।

আরও পড়ুনঃআইপিএল শুরুর আগেই ধোনি-রায়না বন্ধুত্বে ফাটল, তার জন্যই কি দেশে ফিরলেন রায়না

দেশ ছাড়ার আগে চেন্নাইতে যে অনুশীলন শিবিরের আয়োজন করছিল সিএসকে তাতে যোগ দিতে পারেননি হরভজন সিং। জানিয়ে দিয়েছিলেন পারিবারিক কারণে দলের সঙ্গে আরব আমিরশাহি উড়েও যেতে পারেননি তারকা অফ স্পিনার। পরে জানা যায় মায়ের অসুস্থতার কারণেই দলের সঙ্গে যোগ দিতে পারেননি ভাজ্জি। কিন্তু সিএসকে শিবিরে করোনার থাবা ও রায়নার দেশে ফেরার পর জল্পনা তৈরি হয়েছিল হরভজন দলের সঙ্গে আদৌ যোগ দেবেন কিনা। কিন্তু অবশেষে সব জল্পনার অবসান ঘটিয়ে জানা গিয়েছে আরব আমিরশাহিতে চেন্নাই সুপার কিংসের ক্যাম্পে যোগ দিতে চলেছে বিশ্বকাপ জয়ী অফ স্পিনার। আগামি পয়লা সেপ্টেম্বরই সিএসকে শিবিরে যোগ দেবেন হরভজন সিং।  আর তাতেই কিছুটা খুশির বাতাবরণ সিএসকে শিবিরে।

আরও পড়ুনঃকরোনা বিধ্বস্ত ধোনির সিএসকে কি আইপিএল খেলবে, মুখ খুললেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়

আরও পড়ুনঃউদাসীনতার ফলেই কি সিএসকে শিবিরে করোনা ভাইরাসের থাবা, একাধিক ভাইরাল ছবি ঘিরে উঠছে প্রশ্ন

তবে দলের সঙ্গে যোগ দেওয়ার একাধিক বাধা টপকাতে হবে হরভজন সিংকে। বিসিসিআইয়ের আইপিএল এসওপি অনুযায়ী,দুবাই উড়ে যাওয়ার আগে ভারতে দুবার করোনা পরীক্ষা করাতে হবে হরভজন সিংকে। আর সেখানে রিপোর্ট নেগেটিভ এলে তবেই দুবাই যাওয়ার ছাড়পত্র পাবেন তিনি। দুবাইতে এসেও এক সপ্তাহের জন্য কোয়ারানটিনে থাকবেন হরভজন। সেখানেও কোয়ারেন্টাইনে থাকালীন তিনবার করোনা পরীক্ষা হবে ভাজ্জির। সেই টেস্ট পাসের পরই দল যদি অনুশীলন শুরু করে সেখানে যোগ দিতে পারবেন হরভজন সিং।