বাঙালিরা বেশিরভাগই মাছের পরেই মটনের জন্য বেশ ‘টান’অনুভব করেন। তাই এই রেসিপিটি যে বঙ্গ ভজনরসিকদের ভাল লাগবে, তা হলফ করে বলতে পারি। রেস্তোরাঁর একটি জনপ্রিয় পদ কাশ্মীরি মটন মশালা। নানা রকম মশলা দিয়ে মটনের এই রেসিপি বানানো হয়। লাঞ্চ বা ডিনারে ভাত বা পরোটার সঙ্গে সার্ভ করা যেতে পারে এটি। আজ আপনাদের জন্য রইল মটনের খুব সুস্বাদু এই রেসিপি। কাশ্মীরি মটন মশালা বানানো খুব সহজ। তৈরী করতে  ৫০-৯০ মিনিট এর মত সময় লাগে। রুটি, পরটা, পোলাউ, ভাত সব কিছুর সঙ্গেই এটি মানানসই। তবে দেখে নেওয়া যাক এই রেসিপি।

কাশ্মীরি মটন মশালা বানাতে লাগবে-

আরও পড়ুন- একেবারে অন্য স্বাদের মাছের পদ, বাটার ফিশ স্টেক এর সহজ রেসিপি

আরও পড়ুন- রেস্তোরাঁর স্বাদে ড্রাই চিকেন মাঞ্চুরিয়ান, রইল সহজ রেসিপি

১ কেজি মটন
১ কাপ টকদই
আলু পছন্দ মতন
১/২ কাপ পেঁয়াজ বাটা
১ টেবিল চামচ আদা বাটা
১ চা চামচ রসুন বাটা
২ টেবিল চাচম বেরেস্তা
১ কাপ দুধ
দেড় কাপ সরষার তেল
১/২ টেবিল চামচ কাশ্মীরি লাল লঙ্কার গুঁড়ো
১ চা চামচ হলুদ গুঁড়ো
১ চা চামচ গরম মশলা গুঁড়ো
১ টেবিল চামচ কাজু বাদাম বাটা
২ টেবিল চামচ টমেটো পিউরি
২ টেবিল চামচ ঘি
১ টেবিল চামচ চিনি
লবন স্বাদ মতন 

আরও পড়ুন- ঝকঝকে ত্বক পেতে, এখন থেকেই পাতে রাখুন রায়তা

যে ভাবে বানাবেন-

মটন আধসিদ্ধ করে জল ঝরিয়ে স্টকটাও রেখে দিন। মটনের সঙ্গে টকদই, পেঁয়াজ বাটা,আদা বাটা, রসুন বাটা, কাশ্মীরি লাল লঙ্কার গুঁড়ো, হলুদ গুঁড়ো, কাজু বাদাম বাটা, টমেটো পিউরি ও লবন দিয়ে ভালো করে মেখে ২০ মিনিট রেখে দিন। তেল গরম করে তাতে ম্য়ারিনেট করা মাংস আর বেরেস্তা দিয়ে কষিয়ে ঢেকে দিন। হালকা সেদ্ধ হয়ে এলে টমেটো পিউরি দিয়ে নাড়িয়ে দিয়ে আবার ঢেকে দিন। রান্নার সময় প্রয়োজনে মটনের স্টক দিয়ে দিন। কাঁচা জল রান্নায় একেবারেই দেওয়া চলবে না। এরপর দুধ দিয়ে একটু দমে রাখুন। নামানোর আগে ঘি দিয়ে দিন। গ্রেভি শুকিয়ে এলে নামিয়ে নিন। মনের মত সাজিয়ে পরিবেশন কাশ্মীরি মটন মশালা।