দুবেলা খান ঘি-ভাত, কমবে ভুঁড়ি থেকে ওজন- জেনে নিন এর আশ্চর্য সুফল

| Sep 28 2022, 09:24 PM IST

দুবেলা খান ঘি-ভাত, কমবে ভুঁড়ি থেকে ওজন- জেনে নিন এর আশ্চর্য সুফল

সংক্ষিপ্ত

দেশি ঘি এবং ভাত উভয়ই নিরামিষভোজীদের জন্য প্রোটিনের ভালো উৎস। যদিও এটি এভাবে খাওয়া খুবই উপকারী, তবে এটিকে আরও স্বাস্থ্যকর করতে হলে সবজি সেদ্ধ করে হালকা করে ভেজে বা মসুর ডাল দিয়েও খেতে পারেন।

ফিট থাকার জন্য ব্যায়াম তো শুরু করে দিয়েছেন, কিন্তু ডায়েটে কী কী নেবেন যা স্বাস্থ্যকরও এবং যা তৈরি করতে ও খেতে খুব বেশি পরিশ্রমের প্রয়োজন হয় না। অনেক রেসিপির নাম হয়ত উঠে আসবে। কিন্তু আজকের প্রতিবেদনে রয়েছে এমন এক খাবারের কথা, যা দুবেলার রোজকার খাবার পাতে পড়তেই পারে। এটি কর্মরত পেশাদারদের জন্য সেরা রেসিপি।

ঘি-ভাত

Subscribe to get breaking news alerts

হ্যাঁ, আমরা ঘি এবং ভাতের কথা বলছি, যেগুলো হয়তো এখনো অনেকেই খান, কিন্তু আপনি কি এর উপকারিতা সম্পর্কে অবগত আছেন। যদি না হয়, তাহলে এখানে আমরা এর উপকারিতার পাশাপাশি এটি তৈরি করার সহজ উপায় সম্পর্কে জানাতে যাচ্ছি। এই দেশি এবং সাধারণ খাবারটি আপনার খাদ্যতালিকায় অন্তর্ভুক্ত করে, আপনি খুব সহজেই ওজন এবং পেট উভয়ই কমাতে পারেন।

দেশি ঘি এবং ভাত উভয়ই নিরামিষভোজীদের জন্য প্রোটিনের ভালো উৎস। যদিও এটি এভাবে খাওয়া খুবই উপকারী, তবে এটিকে আরও স্বাস্থ্যকর করতে হলে সবজি সেদ্ধ করে হালকা করে ভেজে বা মসুর ডাল দিয়েও খেতে পারেন।

সঠিক পরিমাণে চাল ও দেশি ঘি খেলে হজমশক্তি ঠিক থাকে, কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা হয় না। ঘি খেলে শরীরে থাকা ময়লাও সহজেই দূর হয়। একইসঙ্গে চাল প্রিবায়োটিক হিসেবে কাজ করে। এটি পেটে ভালো ব্যাকটেরিয়া বাড়াতে সাহায্য করে।

ঘিতে উপস্থিত ফ্যাটি অ্যাসিড শুধু মেটাবলিজম ঠিক রাখে না রক্তে শর্করার মাত্রাও নিয়ন্ত্রণে রাখে। এছাড়াও এতে লিনোলিক অ্যাসিড রয়েছে যা কার্ডিওভাসকুলার সমস্যার সম্ভাবনা কমায়।

সবচেয়ে বড় কথা ভাত এবং ঘি দুটোই প্রোটিন সমৃদ্ধ, তাই যারা ওজন কমাতে চান তাদের রাতের খাবার বা দুপুরের খাবারে শুধুমাত্র ঘি-ভাত খাওয়া উচিত কারণ এটি আপনার পেট দীর্ঘক্ষণ ভরা রাখে। বারবার কোনো কিছু খেতে ভালো লাগে না, যা ওজন ও পেট দুটোই বাড়ার একটা বড় কারণ।

কিভাবে ঘি, ভাত বানাবেন

এই খাবারটির উপকারিতা অনেক, তবে এটি তৈরি করাও খুব সহজ। চলুন জেনে নেই এর ঝটপট রেসিপি।

প্রথমে চাল ভালো করে সিদ্ধ করে নিন। কুকারের প্রেসার নিজে থেকেই ছেড়ে দিন। ততক্ষণ গরম করার জন্য একটি প্যান রাখুন, গরম হওয়ার সাথে সাথে এতে দুই চামচ ঘি দিন। জিরে এবং কাঁচা লঙ্কা যোগ করুন। তারপরে কাটা পেঁয়াজ যোগ করুন এবং সোনালি বাদামী হওয়া পর্যন্ত ভাজুন। পেঁয়াজ ভালো করে ভাজা হলে তাতে রান্না করা চাল ও লবণ দিয়ে ভালো করে মেশান।

উপরে ধনে পাতা কুচি দিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন। এর স্বাদ বাড়ানোর জন্য, আপনি ভাজা কাজু, বাদাম এবং সবুজ ধনেও যোগ করতে পারেন।

আরেকটি সহজ পদ্ধতি হল রান্না করা গরম ভাত একটি প্লেটে বা বাটিতে স্থানান্তর করা। এর উপরে ঘি ঢেলে, লবণ ছিটিয়ে, সবকিছু ভালো করে মিশিয়ে তারপর খেতে হবে।

আরও পড়ুন- চুল অতিরিক্ত পাতলা, এভাবে যত্ন নিন নাহলে টাক হতে বেশি সময় লাগবে না

আরও পড়ুন- উৎসবের মরশুমে নিজেকে সুন্দর ও স্টাইলিশ দেখাতে অবশ্যই এই মেকআপ টিপসগুলি

আরও পড়ুন- পুজোয় আপনার সুবাসে মেতে উঠুক চারপাশ, ফ্ল্যাট ৫০ শতাংশ ছাড়ে মিলছে এই ব্র্যান্ডেড

null