Asianet News BanglaAsianet News Bangla

La Nina: 'লা নিনা'-র জেরে নিউ ইয়ারে হাড় কাঁপানো শীত, ৩ ডিগ্রি নিচে নামতে পারে উত্তর ভারতের তাপমাত্রা

লা নিনার জেরে নিউ ইয়ারে উত্তর ভারতে হাড়কাঁপানো শীত পড়ার পূর্বভাস।  লা নিনা প্রভাবের কারণে জানুয়ারি ও ফেব্রুয়ারিতে ভারতের উত্তরাঞ্চলে তাপমাত্রা ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে নেমে আসার সম্ভাবনা রয়েছে।

 

North India to shiver at 3 degree as La Nina brings Colder winter in January February  RTB
Author
Kolkata, First Published Oct 26, 2021, 8:45 AM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

লা নিনার (La Nina) জেরে নিউ ইয়ারে উত্তর ভারতে হাড়কাঁপানো শীত পড়ার পূর্বভাস (Winter)। উল্লেখ্য, ব্লুমবার্গের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, লা নিনা প্রভাবের কারণে জানুয়ারি ও ফেব্রুয়ারিতে উত্তর ভারতে (Northern parts of India) তাপমাত্রা ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে নেমে আসার সম্ভাবনা রয়েছে।

আরও পড়ুন, আজ সকালেও আকাশের মুখ ভার, বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টির পূর্বাভাস কলকাতা সহ দুই বঙ্গেই

স্প্যানিশ শব্দ লা নিনার অর্থ হল ছোট্ট বালিকা। যদিও এই ছোট্ট বালিকার কারণের বড়সড় প্রভাব পড়ে যায়।  লা নিনার ফলে পূর্ব প্রশান্ত মহাসাগরের উপকূল বরাবর দক্ষিণ থেকে উত্তরদিকে স্বাভাবিকের থেকে শীতল সমুদ্র স্রোতের প্রবাহ লক্ষ্য করা যায়। যার ফলে উচ্চ চাপের সূৃষ্টি হয়। যা আয়ন বায়ুর পশ্চিমমুখী গমনকে ত্বরান্বিত করে। যার দরুন প্রসান্ত মহাসাগরের পশ্চিমদিকে নিরক্ষীয় অঞ্চলে অবস্থিত দক্ষিন-পূর্ব এশিয়া অস্ট্রেলিয়ার উত্তর অংশে প্রচুর বৃষ্টিপাত ঘটে। অপরদিকে পূর্ব উপকূলে অবস্থিত দক্ষিণ আমেরিকার পেরু-ইকুয়েডর উপকূলে শুষ্ক পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়।

আরও পড়ুন, Bangladesh: 'বিদেশে বোমা পড়লে মিছিল-বাংলাদেশের বেলায় চুপ কেন বাংলার মেয়ে', বিস্ফোরক শুভেন্দু

মূলত লা নিনা বিশ্বব্যাপী আবহাওয়ার ধরণকে প্রভাবিত করে। যা ভারতের শীতের আবহাওয়াকে প্রভাবিত করতে পারে। ভারত গত কয়েক সপ্তাহ ধরে চরম আবহাওয়ার সাক্ষী হচ্ছে। এটি বিভিন্ন কারণের জন্য দায়ী  সমুদ্রের উষ্ণতা,দেরীতে বর্ষা বিদায় । ভারতের আবহাওয়া বিভাগের খবর (IMD) অনুসারে, সোমবার দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমী দেশ থেকে সরে গেছে।  ২০১০ থেকে ২০২১ সালের মধ্যে ২০১৭, ২০১০, ২০১৬, ২০২০ এবং ২০২১ সালের মধ্যে দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমীবায়ু ২৫ অক্টোবর বা তার পরে পাঁচবার পিছিয়েছে। দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমীবায়ু ৬ অক্টোবর পশ্চিম রাজস্থান এবং পার্শ্ববর্তী গুজরাট থেকে হ্রাস পেতে শুরু করে।


আরও পড়ুন, 'দেশটা কি পাকিস্তানে পরিণত হচ্ছে ', বাংলাদেশকাণ্ডে সরব অপর্ণা, 'প্রলাপ' বলে কটাক্ষ তথাগতর

অপরদিকে, ভূ-বিজ্ঞান মন্ত্রকের প্রাক্তন সচিব এম রাজীবন যিনি তিন দশকেরও বেশি সময় ধরে দক্ষিণ-পশ্চিম বর্ষা নিয়ে অধ্যয়ন করছেন, তিনি বলেছেন ভারতের চারপাশে সমুদ্রের উষ্ণতা, বর্ষা বিদায়ের পিছনে আরেকটি কারণ। বঙ্গোপসাগর এবং আরব সাগরের উষ্ণতা একটি ঘূর্ণিঝড় সঞ্চালন গঠনে সহায়তা করে। চলতি বছরে লা নিনা প্রভাব ফেলবে। এটি মূলত, প্রশান্ত মহাসাগরের  সমুদ্র স্রোতের সঙ্গে জড়িত।

আরও দেখুন, বিরিয়ানি থেকে তন্দুরি, রইল কলকাতার সেরা খাবারের ঠিকানার হদিশ  

আরও দেখুন, কলকাতার কাছেই সেরা ৫ ঘুরতে যাওয়ার জায়গা, থাকল ছবি সহ ঠিকানা  

আরও দেখুন, মাছ ধরতে ভালবাসেন, বেরিয়ে পড়ুন কলকাতার কাছেই এই ঠিকানায়  

আরও পড়ুন, ভাইরাসের ভয় নেই তেমন এখানে, ঘুরে আসুন ভুটানে  

 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios