আগামী বার আপনি যখন আপনার টয়লেটে জল দেবেন তখন অবশ্যই ঢাকা দিয়ে দেবেন। না হলেই ছড়াতে পারে করোনাভাইরাস। চিনের ইয়াংজু বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষকদের দাবি করোনাভাইরাস মানুষের পাচনতন্ত্রে দীর্ঘক্ষণ বেঁচে থাকতে পারে। মলের মাধ্যমে তা ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা থেকেই যায়। 

'ডেক্সামেথাসোন' প্রাণ বাঁচাচ্ছে গুরুতর করোনা আক্রান্তদের, বিশ্বকে আশার আলো দেখাচ্ছে ইংল্যান্ড ...

গবেষকদের দাবি, টয়লেটে জল দেওয়ার সময় বায়ু প্রবাহের মাধ্যমে  করোনার জীবানু ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে। কম্পিউটার টয়লেট প্লুম এয়ারসোল মডেল ব্যবহার করে চিনের গবেষকরা দেখিয়েছেন কী ভাবে ছড়িয়ে পড়তে পারে সংক্রমণ। গবেষণা পত্রের সহলেখক জি ডিয়াং ওয়াং জানিয়েছেন, সংক্রমণ যাতে ছড়িয়ে না পড়ে তারজন্য ফ্ল্যাসিং টয়লেট প্রথমে ঢেকে রাখতে হবে। তারপরই জল দেওয়ার কাজ শুরু করতে হবে। তিনি আরও বলেছেন ব্যস্ত সময়ে গৃহস্থের শৌচাগারের পাশাপাশি জনগণের জন্য তৈরি শৌচাগারগুলি থেকে সংক্রমণ যাতে ছড়িয়ে না পড়ে সেদিকে খেয়াল রাখা প্রয়োজন। 

৩০০ বছর কোনও পুজো হয়নি মন্দিরে, বালি মাফিয়াদের 'দৌরাত্ম্যে' সামনে আসছে ইতিহাস ...

তবে পাব্লিক টয়লেট গুলি কতটা ঝুঁকিপূর্ণ তা এখনও প্রমান হয়নি বলেই দাবি করেছেন অ্যারিজোনা বিশ্ববিদ্যালেয়ের মাইক্রোবায়োলজিস্ট চার্লস পি গারবা। শ্বাসযন্ত্রে ভাইরাসের সংক্রমণে শৌচাগারের ভূমিকা কতটা তা এখনও পর্যবেক্ষণ চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি। তিনি বলেছেন এটি ঝুঁকি শূণ্য নয়। তবে কতটা ঝুঁকি রয়েছে তা খতিয়ে দেখার প্রয়োজন রয়েছে। পাশাপাশি তিনি আরও বলেন আপনি যখন টয়লেটে ফ্ল্যাস করবেন তখন ভাইরাসটি কতটা সংক্রমক এবং সংক্রমিত হওয়ার জন্য কতটা ভাইরাস লাগে তাও জানা প্রয়োজন। 

ঘোড়ায় চড়ে বিয়ে করতে যাওয়ার 'শাস্তি' পেল বর, মধ্যপ্রদেশে প্রকট হল জাতি বৈষম্য ...

গবেষণায় যুক্ত না থাকলেও ব্রিস্টল বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণা ফেলো ব্রায়ান বাজেডেক জানিয়েছেন, উৎপাদিত এয়ারসোলগুলিতে ভাইরাস থাকলেও ভাইরাসটি সংক্রামক থাকে কিনা তা জানা যায়নি। পাশাপাশি এখনও প্রমাণ হয়নি মল ও মুখের মাধ্যমে কী ভাবে সংক্রমিত হয়।