শহরের কিছু বেসরকারী হাসপাতাল এবং ল্যাবরেটরিগুলি কোভিড -১৯ পরীক্ষার জন্য বাড়ি থেকে নমুনা সংগ্রহ বন্ধ করে দিয়েছে। কারণ নিয়ন্ত্রক প্যানেলের পরামর্শ  অনুযায়ী,  রোগীর কাছ থেকে যেনও কোনওভাবেই অতিরিক্ত কিছু টাকা দাবি করা যাবে না। যদিও বেসরকারি হাসপাতালগুলি ,তাঁরা তাঁদের এর কারণ বোঝাতে একাধিক ব্যাখ্যা দিয়েছে।  

আরও পড়ুন, এমবিবিএস পরীক্ষায় বাড়ল অনিশ্চয়তা, ইন্টার্নশিপ শুরুর কথা ঘোষণা স্বাস্থ্য দপ্তরের

জানা গিয়েছে, একটি বেসরকারী হাসপাতাল জানিয়েছে যে তাঁরা কিছুদিন আগে বাড়ি থেকে সোয়াব নমুনা সংগ্রহ বন্ধ করে দিয়েছিল। হাসপাতালের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বলেন,  যারা অসুস্থতা-অক্ষমতার করাণে হাসপাতালে আসতে পারবে না,বিশেষ করে যারা কোমরবিডিটি রোগী, তাঁদের বাড়িতে আমরা কেবল আমাদের প্রতিনিধি পাঠিয়েছি।'ইএম বাইপাসের একটি বেসরকারী হাসপাতাল, যেটির কলকাতা জুড়ে নমুনা সংগ্রহ করার জন্য ফ্র্যাঞ্চাইজি রয়েছে, তাঁরাও অস্থায়ীভাবে নমুনাগুলির হোম সংগ্রহ বন্ধ করে দিয়েছে। সেখানকার আধিকারিকরা জানিয়েছেন, 'প্রায় ২০০ টি নমুনার ব্যাকলগ রয়েছে। এই নমুনাগুলি পরীক্ষা করার পরেই আমরা পুনরায় বাড়ির নমুনা সংগ্রহ শুরু করব'। উল্লেখ্য, এই বেসরকারি হাসপাতাল যেখানে প্রতিদিন ১০০০ নমুনা সংগ্রহ করত।

আরও পড়ুন, কোভিড রোগীকে রেফার করলে বেড বুক করে দিতে হবে হাসপাতালকেই, কড়া পদক্ষেপ নবান্নের


অপরদিকে, সাধারণত  কোনও বাড়ি থেকে নমুনা সংগ্রের ক্ষেত্রে একজন চিকিৎসককে সাহায্য় করার জন্য আরও একজন প্রতিনিধি থাকে। দুজনকেই এসি গাড়িতে যেতে হয়  এবং সংক্রমণ রুখতে নমুনা সংগ্রহের পর  পিপিই বদলাতে হয়, আর এইক্ষেত্রে তৈরি হয়েছে খরচ সম্পর্কিত বেসরকারি হাসপাতালের ব্য়াখ্যা।  উল্লেখ্য, যেহেতু এক্ষেত্রে নমুনা সংগ্রহ এবং করোনা পরীক্ষা বাবদ একটি নির্দিষ্ট খরচ ধার্য করে দেওয়া হয়েছে।
 

 

ভুয়ো টেস্টের ফাঁদে পড়ে করোনায় মৃত্যু এক ব্য়াক্তির, গ্রেফতার প্রতারণা চক্রের ৩ জন

করোনায় ফের ১ এসবিআই কর্মীর মৃত্য়ু, মৃতের পরিবারকে চাকরি দেওযার দাবিতে ব্যাঙ্ক কর্মীরা

   পূর্ব ভারতের প্রথম সরকারি প্লাজমা ব্যাঙ্ক-কলকাতা মেডিকেল, করোনা রুখতে প্রস্তুতি তুঙ্গে

  মৃত্যুর পর ২ দিন বাড়ির ফ্রিজে করোনা দেহ, অভিযোগ 'সাহায্য মেলেনি স্বাস্থ্য দফতর-পুরসভার'

  অঙ্গপ্রত্যঙ্গ বিকলের পরও কোভিড জয়ী ৫৪-র দুধ ব্যবসায়ী, শহরকে দিলেন এক সমুদ্র আত্মবিশ্বাস

কোভিড রোগী ফেরালেই লাইসেন্স বাতিল, হাসপাতালগুলিকে হুঁশিয়ারি রাজ্য়ের