সন্ধে নামতেই ঝড়-বৃষ্টির পূর্বাভাস কলকাতা সহ রাজ্য়ে।  আবহাওয়া দফতরের খবর অনুযায়ী, শুক্রবার কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৫.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।  যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি কম। শুক্রবারে ঝড় বৃষ্টির পরিমাণ বাড়বে। শনিবার ও রবিবার ঝড়-বৃষ্টির প্রবল সম্ভাবনা।  বজ্রবিদ্যুৎ-সহ হালকা থেকে মাঝারি কোথাও কোথাও ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস। সঙ্গে ৬০ কিলোমিটার গতিবেগে কালবৈশাখী বইবার সম্ভাবনা রয়েছে। 

আরও পড়ুন, রাজ্য়ের করোনা পরিস্থিতি 'চূড়ান্ত বিরক্তিকর', মুখ্যমন্ত্রীকে খোলা চিঠি পাঠিয়ে দাবি প্রবাসী চিকিৎসকদের


 আবহাওয়া দফতরের খবর অনুযায়ী, শুক্রবার কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৫.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।  যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি কম। এবং সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৩.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে তিন ডিগ্রি কম। শহরের বাতাসে আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ সর্বাধিক ৯০ শতাংশ। আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ ন্যূনতম ৫৫ শতাংশ।  শুক্রবার এই মুহূর্তে শহর কলকাতার তাপমাত্রা ২৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

 

আরও পড়ুন, ৪ঠা মে-র পর ধাপে ধাপে উঠুক লকডাউন, জানালেন মমতা


 শুক্রবার  ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দুই দিনাজপুর মালদা, নদিয়া, মুর্শিদাবাদ, পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুর উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা এবং হাওড়া তে। সপ্তাহান্তে শনিবার ও  রবিবারে দক্ষিণবঙ্গের কালবৈশাখী এবং উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা পূর্ব-পশ্চিম মেদিনীপুর, হাওড়া, হুগলি এই জেলাগুলিতে কোথাও কোথাও ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা। ছত্রিশগড় থেকে অন্ধ্রপ্রদেশ পর্যন্ত নিম্নচাপ অক্ষরেখা।  অক্ষরেখা  ওড়িশা ছত্রিশগড় তেলেঙ্গানা তামিলনাড়ুর উপর দিয়ে গেছে। এর জেরে সপ্তাহ জুড়ে ঝড় বৃষ্টির পূর্বাভাস।বৃহস্পতিবার রাতেই উত্তর-পশ্চিম ভারতের ঢুকছে নতুন করে পশ্চিমী ঝঞ্ঝা। এর প্রভাবে হিমাচল প্রদেশ উত্তরাখণ্ড পাঞ্জাব হরিয়ানা চণ্ডীগড় দিল্লি উত্তর প্রদেশের কিছু অংশে ঝড় বৃষ্টির সম্ভাবনা। বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি হবে আগামী ছয়-সাত দিন দক্ষিণ ভারতের রাজ্যগুলির। পূর্ব ভারতের রাজ্যগুলি-অরুণাচল প্রদেশ, আসাম মেঘালয়, মনিপুর, মিজোরাম, নাগাল্যান্ড ও ত্রিপুরাতেও  ভারী ঝড়-বৃষ্টি পূর্বাভাস। উল্লেখ্য় বৃহস্পতিবারও পূর্বাভাস মিলিয়ে কলকাতা ও আশেপাশের অঞ্চলে ব্যপক ঝড় ও শিলাবৃষ্টি হয়েছিল। যার ফলে  চাষের ব্যপক ক্ষতি হয়েছে।

 

 

 করোনা সচেতনতায় মৌলালি ও বেহালায় মুখ্যমন্ত্রী, লকডাউন সফলে এলাকাবাসীকে ধন্যবাদও জানিয়েছেন তিনি

  মেডিক্যালের ছোঁওয়া মানিকতলায়, করোনা আক্রান্তের সংস্পর্শে আসায় দমকল কেন্দ্রের ৩২ কর্মী কোয়রান্টিনে

বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্য়া, মেডিক্য়ালে চিকিৎসক ও সংক্রামিত রোগী থেকে কোয়ারেন্টিনে অন্তত আরও ৪৫

সঙ্ঘাত শেষেও ঘরবন্দি, করোনা পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে মুখ্যসচিবকে চিঠি কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দলের