ভারতে জেএমবি অর্থাৎ জামাত-উল-মুজাহিদিন জঙ্গি সংগঠনের মাথা ও বিহারের বুদ্ধগয়ায় বিস্ফোরণে অভিযুক্ত আরও এক শীর্ষ নেতাকে গ্রেফতার করল কলকাতা পুলিশের স্পেশ্যাল টাস্ক ফোর্স। ধৃতের নাম রেজাউল করিম ওরফে কিরণ। সোমবার তাকে ডানকুনি থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

আরও পড়ুন, 'মাস্ক ছাড়া প্রবেশ নিষেধ', থার্মাল চ্যাকিং করেই অনুমতি মিলছে বিকাশ ভবনে


 এসটিএফ সূত্রে খবর, রেজাউল জেএমবি প্রধান সালাউদ্দিনের ঘনিষ্ঠ সহচর। ২০১৪ সালে সে জেএমবি-তে যোগদান করে । এরপর সংগঠনের মধ্যে সে বড়সড় মাথা হয়ে ওঠে। তার বুদ্ধির জোরেই সে সালাউদ্দিনের ক্রমশ ঘনিষ্ঠ হয়। বুদ্ধগয়া বিস্ফোরণে সে ছিল অন্য়তম কাণ্ডারী। সে সময় বাংলায় বসেই অন্যতম ভূমিকা নেয় সে।  জেএমবি-র অন্যান্য সদস্যদের বিস্ফোরক সরবরাহ করা, আশ্রয় দেওয়া-এসবই করত সে। এদিকে গত ২৯ মে মুর্শিদাবাদের জঙ্গিপুর থেকেই গ্রেফতার করা হয় আবদুল করিম নামে জেএমবি-র আরও এক শীর্ষ নেতাকে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেই রেজাউলের নাম জানতে পারে এসটিএফ।

আরও পড়ুন, স্পেশাল ট্রেনে সাধারণ যাত্রী ওঠা নিষেধ, কর্মীদের নিরাপত্তা চেয়ে চিঠি পূর্ব রেলের

প্রসঙ্গত সম্প্রতি ভারতে জেএমবি অর্থাৎ জামাত-উল-মুজাহিদিন জঙ্গি সংগঠনের মাথা ও বিহারের বুদ্ধগয়ায় বিস্ফোরণে অভিযুক্ত জঙ্গি আব্দুল করিমকে মুর্শিদাবাদের সুতি থানা এলাকা গ্রেফতার করেছিল এসটিএফ। এসটিএফ সূত্রে খবর, আব্দুল করিম জেএমবির বিস্ফোরক বিশেষজ্ঞ। এদেশে জেএমবির তিন মোস্ট ওয়ান্টেড জঙ্গির মধ্যে একজন। বুদ্ধগয়ায় যে আইইডি বিস্ফোরণ ঘটেছিল তা সরবরাহ করেছিল জেএমবির  এই বিস্ফোরক বিশেষজ্ঞ। সেই সময় থেকেই গা ঢাকা দিয়ে বেড়াচ্ছিল আব্দুল করিম। বিহার, ঝাড়খন্ড কখনও বা রাজ্যে বিভিন্ন আত্মীয়ের বাড়িতে গা ঢাকা দিয়ে বেড়িয়েছে এই জঙ্গি। পেশায় ট্রাক্টর চালক করিম চাষবাষের আড়ালেই সংগঠন বিস্তারের কাজ করত। বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার হাতে তার ছবি পৌঁছে যাওয়ায় লুকিয়ে থাকার জন্য চেহারায় আমূল পরিবর্তন এনেছিল করিম। এসব করেও শেষ রক্ষা হয়নি। আর আবার তার মধ্য়েই আর এক জেএমবির শীর্ষ নেতাকে গ্রেফতার করল এসটিএফ।

 

 

করোনা আবহে সুরজিৎ কর পুরকায়স্থের প্রাক্তন স্ত্রী-শাশুড়ির দেহ উদ্ধার, তদন্তে পুলিশ

 পিটিএসে নতুন করে আক্রান্ত আরও ৮, করোনা মুক্ত হয়ে কাজে ফিরলেন ১০০ পুলিশ কর্মী

বাংলাদেশ ফেরৎ ২ যাত্রী করোনা পজিটিভ, কোয়ারান্টিনের পর আক্রান্ত হওয়ায় চিন্তায় স্বাস্থ্য দফতর

 কলকাতা মেডিক্যালের ছাদের কার্নিশে বসে করোনা রোগী, সামলাতে গিয়ে নাজেহাল কর্তৃপক্ষ

দেহ রাখার জায়গা না থাকায় ডিপ ফ্রিজ বসছে মেডিকেলের মর্গে, মৃতদেহ 'ম্যানেজমেন্ট'-এ নিয়োগ অ্যাসিস্ট্যান্ট