ক্যাম্পাস ইন্টারভিউয়ে অসাধারণ দক্ষতার পরিচয় দিল যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীরা। চলতি বছরে লকডাউন চলায় অনলাইনেই ইন্টারভিউ দিচ্ছে যাদবপুর পড়ুয়ারা।  এবছরের ক্যাম্পাস ইন্টারভিউয়ে কর্মসংস্থানের হার রীতিমত ভাল। বিশ্বজোড়া আর্থিক মন্দার বাজারে,  ইতিমধ্যেই ৮৩% পড়ুয়া চাকরি পেয়ে গিয়েছেন। সর্বাধিক বার্ষিক প্যাকেজ ৫৮ লক্ষ টাকা। 


আরও পড়ুন, করোনা আক্রান্ত সদ্য়োজাতের মা-বাবা, মাত্র ২১ দিনেই নবজাতককে দেখতে হল কঠোর পৃথিবী

যাদবপুরের প্লেসমেন্ট বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত আধিকারিক শমিতা ভট্টাচার্য  জানিয়েছেন, ৫০ লক্ষ টাকা এবং তার বেশি বার্ষিক প্যাকেজ পেয়েছেন কম্পিউটার সায়েন্স ও ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ৪ জন পড়ুয়া। কম্পিউটার সায়েন্সের এক পড়ুয়া সর্বাধিক ৫৮ লক্ষ টাকার চাকরি পেয়েছেন একটি আন্তর্জাতিক প্রযুক্তি সংস্থায়। ৩০ লক্ষ থেকে ৫০ লক্ষের বার্ষিক প্যাকেজ পাওয়া পড়ুয়াদের মধ্যে রয়েছেন ১৮ জন। তিনি আরও জানিয়েছেন, লকডাউনের মাঝেই অনলাইনে ইন্টারভিউ দিচ্ছেন  পড়ুয়ারা। যে সকল সংস্থা আগেই চাকরির প্রস্তাব দিয়েছে, এখনও পর্যন্ত তাদের কেউই সিদ্ধান্ত বদল করেনি।


আরও পড়ুন,করোনা আক্রান্ত চিকিৎসক, রোগী ভর্তি বন্ধ হওয়ার আশঙ্কা এবার ন্যাশনাল মেডিক্যালে

উল্লেখ্য়, ২০১৯ সালে সর্বাধিক প্যাকেজ ছিল সাড়ে ৪১ লক্ষ টাকা। এ বার  সেটা গিয়ে দাড়ায় ৫৮ লক্ষ টাকাতে। কলা ও বিজ্ঞান বিভাগে যাঁরা ইন্টারভিউ দিয়েছেন, তাঁদের মধ্যে চাকরি পাওয়ার হার খুবই ভাল বলে জানান শমিতাদেবী। কম্পিউটার সায়েন্স, ইলেকট্রনিক্স অ্যান্ড টেলিকমিউনিকেশন বিভাগে প্লেসমেন্ট বরাবর ভালই হয়। তিনি জানিয়েছেন, ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের এই সব বিভাগ ছাড়াও অন্যান্য বিভাগেও প্লেসমেন্ট ভাল। তাদের মধ্যে ইলেকট্রিক্যাল ও ইনস্ট্রুমেন্টেশন ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে চাকরি পাওয়ার হার রীতিমত নজির গড়েছে।





আরও পড়ুন, লকডাউনে কলকাতায় আটকে পড়ে আত্মহত্য়ার চেষ্টা, হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ভিন রাজ্য়ের ইঞ্জিনিয়ার

করোনার কোপে বন্ধ কলকাতার আস্ত একটি হাসপাতাল, ১০০ ছাড়িয়ে চিকিৎসক-নার্স সহ কোয়ারেন্টাইনে
 
পার্ক সার্কাসের বেসরকারি হাসপাতালে প্রৌঢ়ের মৃত্য়ু, করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসতেই অভিযোগ তুলল পরিবার