কলকাতার দ্বিতীয় করোনা আক্রান্ত তরুণও ঘুরে বেড়ালেন শহরে দায়িত্বজ্ঞানহীনের মত। কলকাতা বিমানবন্দরে তাঁকে সতর্ক করা হয়েছিল, তিনি যেন বাড়িতেই পর্যবেক্ষনে  থাকেন। কিন্তু নিষেধের তোয়াক্কা না করেই বিদেশ ফেরৎ বালিগঞ্জের ওই তরুণ ঘুরে বেডা়লেন কলকাতায়।

আরও পড়ুন, আরও ১ করোনা আক্রান্ত কলকাতায়, ভয়ে কাঁপছে মহানগর


সূত্রের খবর, গত ১৩ মার্চ ওই তরুণ লন্ডন থেকে ভায়া দিল্লি হয়ে কলকাতায় শহরে ফেরেন। কলকাতা বিমানবন্দরে তাঁকে সতর্ক করা হয়েছিল, তিনি যেন বাড়িতেই পর্যবেক্ষনে  থাকেন।  পরবর্তী ১৪ দিন বাড়ি থেকে না বেরতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। অথচ নিয়মকানুনের তোয়াক্কা না করেই কলকাতায় আসা ইস্তক বেপরোয়া ভাবে ঘুরে বেরিয়েছেন লেক রোডের এই তরুণ। তাঁর শরীরেই শুক্রবার মিলল করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব। এই মুহূর্তে বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে ভর্তি ২২ বছরের এই যুবক। তার পরিবারের সদস্য়দেরও ভর্তি করা হয়েছে হাসপাতালে।

আরও পড়ুন, শপিং মলে যায়নি ছেলে, মুখ খুললেন করোনা আক্রান্তের বাবা


জানা গিয়েছে, ওই তরুণ লেক রোডের অভিজাত আবাসনের বাসিন্দা। সেই আবাসনে আবার কলকাতার এক মেয়র পারিষদও থাকেন। ওই মেয়র পারিষদ জানিয়েছেন, তরুণের ওই বেপরোয়া আচরণ আবাসনের বাসিন্দাদের আশঙ্কার দিকে ঠেলে দিয়েছে। এলাকার বাসিন্দারদের অভিযোগ, ওই তরুণ বিদেশ থেকে ফিরে এলাকায় এবং শহরের শপিংমলে দেদার ঘুরে বেড়িয়েছেন। এই বিষয়ে স্বাস্থ্য় দফতরের এক কর্তা জানিয়েছেন, বিদেশ থেকে ফিরে ওই তরুণ শহরের কোথায় কোথায় ঘুরেছেন তার তালিকা তৈরি হচ্ছে। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য়, ইংল্য়ান্ড ফেরৎ রাজ্য়ের সরকারি আমলার ছেলেও নিষেধের তোয়াক্কা না করেই ঘুরে বেরিয়েছিলেন গোটা শহর-সরকারি দফতর।

আরও পড়ুন, এবার করোনা নিয়ে কবিতা, মমতার নিশানায় মা-ছেলে