শনিবার সারাদিনই আংশিক মেঘলা আকাশ।  হাওয়া অফিস সূত্রে খবর, জুনেই রাজ্যেও ঢুকছে বর্ষা। প্রথম সপ্তাহে উত্তরবঙ্গে ও দ্বিতীয় সপ্তাহে কলকাতায় ।উত্তরবঙ্গের দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি ,আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার, কালিম্পং এই জেলাগুলিতে ঝড়-বৃষ্টির সম্ভাবনা বেশি। দক্ষিণবঙ্গের ঝাড়গ্রাম পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুরে ঝড় বৃষ্টির সম্ভাবনা বেশি। কলকাতা সহ বাকি জেলাতেও ঝড় বৃষ্টির সামান্য সম্ভাবনা। স্ট্রং সাউদার্লির জেরে প্রচুর জলীয়বাষ্প ঢুকছে। জলীয় বাষ্প থেকে বজ্রগর্ভ মেঘ ও ঝড় বৃষ্টির সম্ভাবনা তৈরি হচ্ছে। কলকাতার এই মুহূর্তের তাপমাত্রা ৩৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। 

আরও পড়ুন, সোমবার থেকেই খুলছে কলকাতার ৪৫ পুর বাজার, জানুন কী কী বিষয়ে কড়াকড়ি


কলকাতায়  আকাশ সারাদিনই মেঘে ঢেকে আছে।  বিকেলের পর ঝড় বৃষ্টির সম্ভাবনা। হাওয়া অফিস জানিয়েছে, শনিবার কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৭.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি বেশি।  এবং সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৪.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস।  যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি কম। শহরের বাতাসে আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ সর্বাধিক ৯৩ শতাংশ। আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ ন্যূনতম ৫৬ শতাংশ।গতকাল  কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ২২.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে পাঁচ ডিগ্রি কম।  এবং সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২৬.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস।  যা স্বাভাবিকের থেকে আট ডিগ্রি কম। 

আরও পড়ুন, করোনার কোপ, ৬২৪ বছরে প্রথমবার স্থগিত মাহেশের রথযাত্রা

 দক্ষিণ পশ্চিম মৌসুমি বায়ু ক্রমশ সক্রিয় হচ্ছে।  আরব সাগর ও  বঙ্গোপসাগরের আরো বেশি এলাকায় বিস্তার লাভ করবে আগামী ২৪ ঘণ্টায়।  দক্ষিণ পূর্ব আরব সাগরে নিম্নচাপের সম্ভাবনা। এটি উত্তরও উত্তর-পশ্চিম দিকে এগিয়ে যাবে গভীর নিম্নচাপ হয়ে। এর টানেই আরও গতি বাড়াবে দক্ষিণ পশ্চিম মৌসুমি বায়ু। পয়লা জুন নির্ধারিত সময়েই বর্ষা ঢুকে পড়বে কেরলে এমনটাই অনুমান আবহাওয়াবিদদের।

 

 

করোনা আক্রান্ত রাজ্য়ের তৃণমূল বিধায়ক, কালীঘাটের ফ্ল্য়াট সিল করে বসল পুলিশি প্রহরা

করোনা আক্রান্ত বেলেঘাটা থানার আধিকারিক সহ পরিবারের ৬ সদস্য, আইডিতে এখন চিকিৎসধীন

দেহ রাখার জায়গা না থাকায় ডিপ ফ্রিজ বসছে মেডিকেলের মর্গে, মৃতদেহ 'ম্যানেজমেন্ট'-এ নিয়োগ অ্যাসিস্ট্যান্ট

কোভিড পজিটিভ হয়ে মৃত্য়ু প্রখ্যাত ইতিহাসবিদ হরিশঙ্কর বাসুদেবনের