নিজেকে যুদ্ধ-বিরোধী বললেন। ইসলামাবাদ প্রথমে পরমাণু যুদ্ধ শুরু করবে না এই কথাও বললেন। কিন্তু সেই সঙ্গে ফের পরমাণু যুদ্ধের সম্ভাবনাও উসকে দিলেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। তবে ভারতের সঙ্গে সরাসরি যুদ্ধে যে পাকিস্তান পেরে উঠবে না বকলমে সেই কথাও মেনে নিলেন তিনি।

এক আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাতকারে ইমরান বললেন, দুটি পরমাণু শক্তিধর দেশ যখন সরাসরি যুদ্ধের রাস্তায় যায়, তখন তার ফলাফল ভয়ঙ্কর হতে পারে। সেই যুদ্ধ শেষ পর্যন্ত পরমাণু যুদ্ধের দিকে গড়াতে পারে।

তিনি আরও বলেন, ধরা নেওয়া যাক ভারতের সঙ্গে সরাসরি যুদ্ধে পাকিস্তান পেরে উঠল না। সেই ক্ষেত্রে পাকিস্তানের সামনে দুটি রাস্তা খোলা থাকবে। এক, আত্মসমর্পন করা। দুই, স্বাধীনতার জন্য আমৃত্যু লড়াই করা। পাকিস্তান কখনই ভারতের কাছে আত্মসমর্পন করবে না বলে দাবি করেন পাক প্রধানমন্ত্রী। এরপরই তিনি হুমকির সুরে বলেন, একটি পরমাণু শক্তিধর দেশ আমৃত্যু লড়াইয়ের পথে গেলে তার ফলাফল মোটেই ভাল হবে না।

আরো পড়ুন - নরকে হবে ভোজ, মোদীকে 'বিশেষ উপহার'-এর হুমকি, দেশেই বিপাকে পাক গায়িকা, দেখুন ভিডিও

আরো পড়ুন - ৭১-এ দু'ভাগ হয়েছিল, এবার চার-পাঁচ টুকরো হবে, বিশ্বের মানচিত্র থেকে মুছে যাবে পাকিস্তান

আরো পড়ুন - কাশ্মীরিদের নিয়ে দরদ, বালুচদের কী অবস্থায় রেখেছে পাকিস্তান, ফাঁস করলেন মানবাধিকার কর্মী

আরো পড়ুন - কুলভূষণ মামলায় পাকিস্তানের ইউটার্ন, ফের ভিয়েনা চুক্তি লঙ্ঘন

নরেন্দ্র মোদী সরকার জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিলের পর থেকেই বারে বারে উস্কানিমূলক মন্তব্যে উপত্যকার শান্তি বিঘ্নিত করতে চাইছেন ইমরান খান। এর আগে গত শুক্রবারও তিনি পাক অধিকৃত কাশ্মীরের রাজধানী মুজফ্ফরাবাদে সভা করতে এসে 'স্বাধীনতা'-র লড়াইয়ের জন্য কাশ্মীরিদের হাতে অস্ত্র তুলে নেওয়ার আহ্বান জানান। ক্রমবর্ধমান ভারত-পাক উত্তেজনার মধ্যে পরমাণু যুদ্ধের কথাও তিনিই প্রথম তুলেছেন।