প্রতিবাদের ঝড় সবসময়েই উঠেছে তার গলায়। কোনও কিছু মুখ বুঝে সহ্য করা তার সহজাত নয়। অন্যায়ের বিরুদ্ধে সবসময়েই তিনি গলা চড়িয়ে গর্জে ওঠেন। তিনি হলেও টলিউডের প্রথমসারির অভিনেত্রী স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়। সম্প্রতি আবারও তিনি মুখ খুললেন। আগামীকাল অর্থাৎ ৫ এপ্রিল প্রধানমন্ত্রীর মোমবাতি জ্বালানোর নিদান দিয়েছেন সকল দেশবাসীকে। সেই মোমবাতি নিয়েই এবার ফুঁসে উঠলেন অভিনেত্রী। তার মতে যাদের  পেটে দুমুঠো খাবার জুটছে না, যাদের মাথা গোঁজার ঠাঁই নেই, নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিস নেই, কোনওরকমভাবে যারা দিনাতিপাত করেছন সেই সমস্ত মানুষেরা কোন পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে বারান্দায় মোমবাতি জ্বালাবে। এই নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন স্বস্তিকা।

আরও পড়ুন-লকডাউনে বাথটবে উষ্ণতা ছড়াচ্ছেন ঝুমা বউদি, লাস্যময়ীর ছবিতে কাঁপছে নেটদুনিয়া...

 

 

তিনি আরও জানিয়েছেন, 'আমার বাড়িতে মোমবাতি নেই, চলুন সবাই মিলে মোমবাতি কিনে নিয়ে আসি। এখানেই থামেননি বর্তমান পরিস্থিতিতে কীভাবে রয়েছেন যৌনকর্মীরা। সেই নিয়ে সরব হয়েছেন অভিনেত্রী। লকডাউনের মধ্যেই যৌনকর্মীদের বাস্তব চিত্রটা তুলে ধরেছেন অভিনেত্রী। যৌনকর্মীদের বাড়ি থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে। তাদের থাকার কোনও জায়গা নেই। জায়গা নেই বললে ভুল হবে জায়গা আছে, ১০০ ফুটের একটি জায়গা যেখান একটা বেঞ্চ পাতে। সেখানেই বাচ্চাদের নিয়ে দিন গুজরান করছেন তারা। একবার তাদের কথা ভাবুন যারা খাবার, রেশন, জল কিছুই পাচ্ছে না এই সংকটে। আর তারা কিনা একজোট হয়ে বারান্দাই দাড়িয়ে মোমবাতি জ্বালাবে। খানিক ব্যাঙ্গাত্মক সুরে মোদির উদ্দেশ্যে জানিয়েছেন, যৌনকর্মীদের তো বেঁচে থাকার জন্য শুধু যৌনতার প্রয়োজন হয়।'

 

কয়েকদিন আগেও যোগী রাজ্যে অন্যায়ের বিরুদ্ধেও সরব হয়েছিলেন অভিনেত্রী। যেখানে ভিন রাজ্যের শ্রমিকেদর রাস্তায় বসিয়ে তাদের উপর জীবাণুনাশক স্প্রে ছড়ানো হয়েছিল। দেশের দুস্থ, অসহায় মানুষেরা যে কঠিন পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে দিন কাটাচ্ছে তাও তুলে ধরেছেন অভিনেত্রী। লকডাউনে সকল দেশবাসীর জন্য গত শুক্রবার নয়া দাওয়াই দিয়েছেন নরেন্দ্র মোদি।  ৫ এপ্রিল  অর্থাৎ আগামীকাল গোটা দেশবাসীর কাছ থেকে ৯ মিনিট চেয়ে নিয়েছেন মোদি।  রাত ৯টায় ঘরের সমস্ত আলো নিভিয়ে নিজেদের বাড়ির বারান্দায় কিংবা ছাদে এসে প্রদীপ, মোমবাতি অথবা টর্চের আলো জ্বালানোর নিদান দিয়েছেন তিনি। বাড়িতে এসব না থাকলেও কোনও ব্যাপার না, মোবাইলের ফ্ল্যাশ জ্বালালেও হবে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্রমোদি আরও জানান, 'রবিবার রাতে এই কাজের মাধ্যমেই আমাদের প্রমাণ করতে হবে যে আমরা কেউ হেরে যাইনি। আমরা প্রত্যেকে নিজেদের  বাড়িতে থেকেও কারোর থেকে আলাদা নই।' আর প্রধানমন্ত্রীর এই মোমবাতি জ্বালানোর নিদান প্রকাশ্যে আসার পর থেকেই  তীব্র সমালোচনায় সরব হয়েছেন অভিনেত্রী স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়।

 

 

আরও পড়ুন-সার্জিক্যাল নয়, ঘরোয়া মাস্ক পরার নয়া নির্দেশ কেন্দ্রের...

আরও পড়ুন-মেডিক্যালে প্রযুক্তিগত সমস্যার জের, অন্য রোগী সরিয়েই বাঙ্গুর হল করোনা হাসপাতাল...

আরও পড়ুন-রাজ্য়ে করোনায় আক্রান্ত এবার এক নার্স, পরিবারকে কোয়ারেনটাইনে থাকার নির্দেশ স্বাস্থ্য দফতরের...