ঠাকুমা দিদিমাদের হাতের তৈরি খেজুরের আচার, চাটনি এসব কথা মনে পড়লেই, একছুটে ছেলেবেলার সেই সময়গুলো ভেসে ওঠে চোখের সামনে। কাঁচের জারে রোদে দেওয়া সেই আচারের স্বাদ, মনে পড়লেই জিভে আপনা থেকেই জল চলে আসে। খাওয়ার শেষ পাতে হোক, বা মনের ইচ্ছেতে যখন তখন এই খেজুরের চাটনি বা আচার খাওয়াই যায়। শীতের মরশুম শেষে শুরু হয়েছে বসন্তকাল। এই সময়টাই এই চাটনি বা আচার খাওয়ার জন্য একেবারে উপযুক্ত। তবে আর সময় নষ্ট না করে চলুন একেবারে চোখ রাখি ছোটবেলার সেই হারিয়ে যাওয়া দিনগুলির স্বাদে, বড়দের থেকে লুকিয়ে চুরি করে খাওয়া খেজুরের আচার বানানোর পদ্ধতিতে। যাতে লেগে থাকবে একেবারে ছোটবেলার দিদিমা ও ঠাকুমার হাতের স্বাদ।

আরও পড়ুন- মটনের এই পদেই জমবে ভোজ, রইল কাশ্মীরি মটন মশালার রেসিপি

আরও পড়ুন- একেবারে অন্য স্বাদের মাছের পদ, বাটার ফিশ স্টেক এর সহজ রেসিপি

খেজুরের চাটনি বানাতে লাগবে-

১০০ গ্রাম খেজুর
১ চা চামচ লাল লঙ্কার গুঁড়ো
১ চা চামচ জিরের গুঁড়ো
হাফ কাপ তেঁতুলের কাত্থ
১ চা চামচ রোস্টেড মৌরি গুঁড়ো
সামান্য টুকরো করা ড্রাই ফ্রুট
হাফ চা চামচ বিট লবন
স্বাদ মতন চিনি

আরও পড়ুন- রেস্তোরাঁর স্বাদে ড্রাই চিকেন মাঞ্চুরিয়ান, রইল সহজ রেসিপি

যে ভাবে বানাবেন-
 সবার প্রথমে খেজুরের বীজ বার করে ভালো করে ধুয়ে নিন। ২ ঘন্টার মত খেজুরগুলো জলে ভিজিয়ে রাখুন। এরপর মিনিট পাঁচেক কম আঁচে ফুটিয়ে নিন। একপর গ্রাইন্ডারে সেদ্ধ করে নেওয়া খেজুর ও ড্রাই ফ্রুটসগুলি দিয়ে পেস্ট করে নিন। চাইলে কয়েকটা গোটা রেখে দিতে পারেন। এরপর এই পেস্টের সঙ্গে সমস্ত গুঁড়ো মশলা, তেঁতুলের কাত্থ, লবন ও চিনি মিশিয়ে নিন। একটি কাঁচের কন্টেনারে রেখে মাঝেমধ্যে রোদে দিন। সিঙ্গারা বা পরোটার সঙ্গে অথবা খাবারের শেষ পাতে চেখে দেখুন এই জিভে জল আনা চাটনি।