ক্যানসারের চিকিৎসা করানোর জন্য কলকাতায় এসে মৃত্যু হল মিজোরামের প্রবীণ বাসিন্দার। সল্টলেকের বেসরকারি হাসপাতালে তাঁর মৃত্যু হয়। হাসপাতাল সূত্রে খবর, বছর পঁচাত্তরের ওই ব্যক্তির শরীরে করোনাভাইরাসের উপসর্গ ছিল। যদিও তাঁর নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট এখনও এসে পৌছায়নি।

আরও পড়ুন, লকডাউনে মদ কিনতে হাজির হাজারখানেক মানুষ, মুখ্যমন্ত্রীর পাড়ায় ১৪৪ ধারা ভাঙতেই পুলিশের লাঠিচার্জ


লকডাউনের আগেই মিজোরাম থেকে দুই ব্যক্তি এসেছিলেন কলকাতায়। তাঁদের মধ্যে ৭৫ বছরের এক ব্যক্তি ক্যানসার আক্রান্ত। তাঁর চিকিৎসার জন্যেই সল্টলেকের আইবি ব্লকের একটি বাড়িতে উঠেছিলেন তাঁরা। যাতায়াত ছিল মিজোরাম হাউসেও। গত শনিবার তাঁদের শরীরে করোনা উপসর্গ দেখা দেওয়ায় হাসপাতালে ভর্তি হন। তারপরই সংক্রমণের আশঙ্কায় বিধাননগর পুর প্রশাসনের তরফে সিল করে দেওয়া হয় মিজোরাম হাউস। রবিবার রাতে এই ব্যক্তির মৃত্যু হয়। এদিকে করোনা উপসর্গ দেখা দেওয়ায় ওই ব্য়ক্তির লালারস পরীক্ষার জন্য় পাঠানো হয়েছে। তার রিপোর্ট এখনও এসে পৌছোয়নি। যদিও মিজোরামের এই বাসিন্দার মৃত্য়ুর কারণ এখনও নিশ্চিত করেনি স্বাস্থ্য দফতর।

আরও পড়ুন, করোনা আক্রান্ত মিজোরামের দুই বাসিন্দা কলকাতায় চিকিৎসাধীন, সবরকম সাহায্যের আশ্বাস দিলেন সরকার

 

অপরদিকে,  সল্টলেকের ওই মিজোরাম হাউসে  জীবাণুনাশক স্প্রে করা হয়েছে। রবিবার রাতে এই ব্যক্তির মৃত্যুতে আতঙ্ক আরও বেড়েছে। এবং এই ব্যক্তির মৃত্যুর পর মিজোরাম হাউসের ২৫ জনকেই কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে।  

 

 

এনআরএসে করোনা আক্রান্ত আরও ১৩, একজনের রিপোর্ট আসার আগেই মৃত্যু

টানা ২ সপ্তাহ পর খুলল হাওড়া হাসপাতাল, করোনাকে হারিয়ে কাজে যোগ দিলেন সুপার

টিকিয়াপাড়া কাণ্ডে কড়া পদক্ষেপ নিল পুলিশ, গ্রেফতার প্রধান অভিযুক্ত শাকিব সহ আরও ১৩

রোগী ফেলে পালাতে পারল না অ্যাম্বুল্যান্স, পিপিই পরা স্বাস্থ্য়কর্মীদেরকে তীব্র প্রতিবাদ নাকতলাবাসীর