লকডাউনের জেরে রাজস্থানের কোটায় আটকে পড়া  পড়ুয়াদেরকে সম্প্রতি রাজ্যে ফিরিয়ে আনা হয়েছে। তাঁদের মধ্যে ছিলেন হাওড়ার বাসিন্দা এক ছাত্রীও। ফিরে আসার পরে  তাঁকে গৃহ-পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছিল। তাঁর নুমনা পরীক্ষার রিপোর্ট আসতেই জানা যায় ওই ছাত্রী করোনা পজিটিভ।

আরও পড়ুন, 'সন্তানের দুধ কেনার টাকা নেই-খুব কষ্টে আছি আমরা', মাসিক বেতন দেওয়ার অনুরোধ জানাল বিগবাজারের এক স্টাফ


জেলা স্বাস্থ্য দফতর সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবার বিকেলে ওই ছাত্রীকে গোলাবাড়ির একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গত ১ মে বিশেষ বাসে কোটা থেকে ওই পড়ুয়াদের রাজ্যে ফিরিয়ে আনা হয়। ওই ছাত্রীর বাবা জানিয়েছেন, তাঁর মেয়ে কোটায় ডাক্তারি পরীক্ষার প্রস্তুতি নেওয়ার জন্য পড়তে গিয়েছিলেন। কিন্তু লকডাউনে সেখানেই আটকে পড়েন। বাকি কয়েক হাজার পড়ুয়ার সঙ্গে গত শুক্রবার তিনি ফেরেন সাঁকরাইলের বাড়িতে। ওই পড়ুয়ার বাবা আরও জানিয়েছেন, 'আমি প্রাক্তন সেনাকর্মী। তাই করোনার বিষয়ে যথেষ্ট সচেতন। মেয়ে ফিরে আসার আগেই, বাড়ির দোতলায় সম্পূর্ণ আলাদা ভাবে ওর থাকার ব্যবস্থা করি। বাইরে থেকে সব ঘরের দরজাও বন্ধ করে দিই। করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট পজ়িটিভ আসার পরে জেলা স্বাস্থ্য দফতরের গাড়ি এসে মেয়েকে হাসপাতালে নিয়ে যায়।'

আরও পড়ুন, রবীন্দ্র জয়ন্তীতে রবীন্দ্র সঙ্গীতের সঙ্গে চালাতে হবে মুখ্যমন্ত্রীর লেখা গান, নির্দেশ রাজ্য়ের

অপরদিকে, জেলা স্বাস্থ্য দফতরের এক পদস্থ কর্তা জানিয়েছেন, 'মনে হচ্ছে কোটা থেকেই ওই ছাত্রী সংক্রমিত হয়েছেন। তিনি কোন বাসে ফিরেছিলেন এবং তাঁর সঙ্গে কারা কারা ছিলেন, সেই বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।'

 

 

 

রাজ্য়ে করোনা আক্রান্তের অর্ধেকের বেশি কলকাতার,৭০০ থেকে একদিনে ৭৫৪

করোনার থাবায় বন্ধ বাঘাযতীনের এক নার্সিংহোম, স্যানিটাইজেশনে বাঘাযতীন হাসপাতাল

করোনা উপসর্গ সহ মিজোরামের বাসিন্দার মৃত্য়ু হল কলকাতায়, ক্যানসারের জন্য় তিনি ছিলেন চিকিৎসাধীন

রোগী ফেলে পালাতে পারল না অ্যাম্বুল্যান্স, পিপিই পরা স্বাস্থ্য়কর্মীদেরকে তীব্র প্রতিবাদ নাকতলাবাসীর