করোনা উপসর্গ সহ গড়ফা থানার অ্যাসিস্ট্যান্ট সাব-ইন্সপেক্টরের মৃত্যু ঘিরে বিক্ষোভ। সোমবার সকালেই ওই এএসআইয়ের মৃত্যুর পর সহকর্মীদের অভিযোগ, সময়মতো সঠিক চিকিৎসা না করানোয় করোনা আক্রান্ত হয়েই তাঁর মৃত্যু হয়েছে।  সূত্রের খবর, পরিস্থিতি সামাল দিতে ঘটনাস্থলে যাচ্ছেন পুলিশের বড় কর্তারা।

আরও পড়ুন, নতুন করে কলকাতায় আরও বাসরুট খোলার সম্ভাবনা, ৪৯ রুটে মিলতে পারে পরিষেবা


জানা গিয়েছে, দিন কয়েক আগে গড়ফা থানার এক পুলিশ অফিসার করোনায় আক্রান্ত হন। তাঁর সংস্পর্শে আসা আরও ৪ জনকে হাওড়ার ডুমুরজলা স্টেডিয়ামে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়। তাঁদেরও শারীরিক পরীক্ষা করা হয়। এদিকে প্রথমবারে সকলেরই করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। তবে এরপরই রবিবার থেকে প্রবল শ্বাসকষ্টে ভুগতে থাকেন ওই এএসআই। দ্রুত তাঁকে হাওড়া থেকে এমআর বাঙ্গুর হাসপাতালে নিয়ে আসার ব্যবস্থা করা হয়। কিন্তু  আমফানের তাণ্ডবে কলকাতার রাস্তাঘাটে গাছ পড়ে  থাকায় বাধার সম্মুখীন হতে হয়। তা সত্ত্বেও যত দ্রুত সম্ভব ওই এএসআইকে বাঙ্গুরে ভর্তি করানো হয়। সূত্রের খবর, রাত থেকেই তাঁর অবস্থায় দ্রুত অবনতি হতে থাকে। সোমবার সকালে ওই অ্যাসিস্ট্যান্ট সাব-ইন্সপেক্টরের মৃত্যু হয়েছে।

আরও পড়ুন, কলকাতা মেডিক্য়ালের বড়সড় সাফল্য, সোমবার সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরছে ৬০ করোনা মুক্ত রোগী


অপরদিকে দুপুর নাগাদ গড়ফা থানার মধ্যেই বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি তৈরি হয়।  পরিস্থিতি অনেকটাই জটিল হয়ে ওঠে। থানা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে সহকর্মীরা ক্ষোভপ্রকাশ করতে থাকেন। তাঁর সহকর্মীদের দাবি, করোনা আক্রান্ত হয়েই তাঁর মৃত্যু হয়েছে। সময়মত সঠিক চিকিৎসা হলে এই মৃত্যু এড়ানো যেত। লালবাজারের এক কর্তা জানিয়েছেন,ওই এএসআইয়ের নমুনা সংগ্রহ করে ফের করোনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে, তার রিপোর্ট আসার অপেক্ষা করা হচ্ছে।  

 

 

 রাজ্য়ে একদিনে সর্বোচ্চ সংক্রমণ, করোনা আক্রান্তের সংখ্য়া ছাড়াল ২০০

দেহ রাখার জায়গা না থাকায় ডিপ ফ্রিজ বসছে মেডিকেলের মর্গে, মৃতদেহ 'ম্যানেজমেন্ট'-এ নিয়োগ অ্যাসিস্ট্যান্ট

কোভিড হাসপাতালে স্বাভাবিক মৃত্য়ুতেও পরিবার চাইলে সৎকার করবে কলকাতা পৌরসভা, জানালেন ফিরহাদ

কোভিড পজিটিভ হয়ে মৃত্য়ু প্রখ্যাত ইতিহাসবিদ হরিশঙ্কর বাসুদেবনের

রোগী ফেলে পালাতে পারল না অ্যাম্বুল্যান্স, পিপিই পরা স্বাস্থ্য়কর্মীদেরকে তীব্র প্রতিবাদ নাকতলাবাসীর