করোনা উপসর্গ রয়েছে এমন ধৃতদের রাখতে 'আইসোলেশন লকআপ' তৈরির পরিকল্পনা নিল লালবাজার। করোনা উপসর্গ থাকা ধৃতদের সেখানে রাখা হবে। তবে এই পরিকল্পনা হঠাৎ মাথায় আসেনি। করোনা এক আক্রান্ত ধৃতের সংস্পর্শে এসে মাঝে একাধিক পুলিশ আধিকারিককে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছিল। তারপরেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। 

আরও পড়ুন, করোনা দেহ সৎকারে নয়া উদ্য়োগ, হোয়াটসঅ্যাপ নম্বর চালু করল কলকাতা পুরসভা


প্রসঙ্গত, গত ১৮ জুলাই একটি প্রতারণা চক্রের অন্যতম অপরাধীকে গ্রেফতার করে কলকাতা পুলিশ। আদালতে তোলার পর তাকে পুলিশি হেফাজতে পাঠানো হয়। এদিকে জেরা চলাকালীন ২২ জুলাই তার করোনার উপসর্গ দেখা দেয়। তারপর তাকে আইসোলেশনে রেখে পরেরদিনই কোভিড টেস্ট করানো হয়। এরপর ধৃতের রিপোর্ট পজিটিভ আসে। তাকে ভর্তি করা হয় মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে। আর এই ধৃত আক্রান্ত হওয়ার ফলে কলকাতা পুলিশের সংক্রমণের সম্ভাবনা বেড়ে যায়। যার দরুণ লালবাজারের গোয়েন্দা বিভাগের ১২ জনেরও বেশি পুলিশ আধিকারিককে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে। এক আধিকারিকের রিপোর্ট ইতিমধ্যে পজিটিভ এসেছে।

আরও পড়ুন, লকডাউনে গড়ের মাঠ কলকাতা বিমানবন্দর, বসে শুধু একজন যাত্রী, দেখুন সেই ছবি

  অপরদিকে, কলকাতা পুলিশের সব থানায় সেই আইসোলেশন লকআপ তৈরি করা  সম্ভব হবে কি না, এ নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। পুলিশ কর্তারা জানিয়েছেন, আইসোলেশন লকআপের জন্য স্থানীয় থানাগুলিকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ করতে বলা হয়েছে। যদিও আধিকারিকরা জানিয়েছেন, সেই সব থানায় ওই আইসোলেশন লকআপ করার প্রয়োজনীয় পরিকাঠামো নেই।
 

 

করোনায় ফের ১ এসবিআই কর্মীর মৃত্য়ু, মৃতের পরিবারকে চাকরি দেওযার দাবিতে ব্যাঙ্ক কর্মীরা

   পূর্ব ভারতের প্রথম সরকারি প্লাজমা ব্যাঙ্ক-কলকাতা মেডিকেল, করোনা রুখতে প্রস্তুতি তুঙ্গে

  মৃত্যুর পর ২ দিন বাড়ির ফ্রিজে করোনা দেহ, অভিযোগ 'সাহায্য মেলেনি স্বাস্থ্য দফতর-পুরসভার'

  অঙ্গপ্রত্যঙ্গ বিকলের পরও কোভিড জয়ী ৫৪-র দুধ ব্যবসায়ী, শহরকে দিলেন এক সমুদ্র আত্মবিশ্বাস

কোভিড রোগী ফেরালেই লাইসেন্স বাতিল, হাসপাতালগুলিকে হুঁশিয়ারি রাজ্য়ের