কঠিন সময়ে মাত্র তিন দিন পৃথিবীর আলো দেখেছে সে। আর তার মধ্যেই তাকে খুন হতে হল।  আনন্দপুর থানা এলাকার নোনাডাঙায় তিনদিনের শিশুকন্যাকে খুন করলেন মা।  প্রথমে মা অস্বীকার করলেও পরে ময়নাতদন্তের খবরে নির্মম হত্য়াকাণ্ডের পর্দাফাঁস করল পুলিশ।

আরও পড়ুন, পাতিপুকুর মাছ বাজারে একাধিক উপসর্গহীন করোনা আক্রান্তের হদিশ, আতঙ্কিত ক্রেতা-বিক্রেতা

সোমবার আনন্দপুর থানা এলাকার নোনাডাঙায় তিনদিনের শিশুকন্যাকে খুনের অভিযোগে গ্রেফতার হলেন মা। পুলিশ সূত্রে খবর, ফেব্রুয়ারি মাসে বাড়িতেই মৃত্যু হয় ওই শিশুটির। পুলিশের দাবি, সেইসময় মৃত শিশুটির মা জানিয়েছিলেন, তাঁর আরেক সন্তানের হাত ঘুমের ঘোরে অসাবধানতাবশত সদ্যোজাতর মুখে চাপা পড়ায় শ্বাসরুদ্ধ হয়ে তার তিন দিনের শিশুকন্য়ার মৃত্যু হয়েছে। কিন্তু জুলাই মাসে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট ঘুরিয়ে দিল গোটা ঘটনার মোড়। রিপোর্টে পুলিশ জানতে পারে, শ্বাসরোধ করেই ওই তিনদিনের শিশুটিকে খুন করা হয়েছে। 

আরও পড়ুন, কলকাতায় মৃতের সংখ্যা একহাজার ছুঁইছুঁই, শহরে একদিনে আক্রান্ত ৬১৫ জন


অপরদিকে, ময়নাতদন্তের রিপোর্ট আসতেই চাপের মুখে পড়েন মৃতার মা। এরপর দোষ স্বীকার করেন তিনি। সোমবার সকালে মাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান, অভাবের তাড়নায় সন্তানকে খুন করেছে তার মা। উল্লেখ্য, কিছু দিন আগে শহরে আরও এখ মর্মান্তিক শিশু খুনের ঘটনা উঠে এসেছিল। সেবারও ফরেন্সিক রিপোর্টের পর চিকিৎসকেরা জানিয়েছিল ছোট শিশু গলা আঙুলের ছাপের কথা। 

 

কোভিড রোগী ভর্তিতে ৫০ হাজার টাকার বেশি নেওয়া যাবে না, নয়া নির্দেশিকা জারি রাজ্যের

ভয় নেই করোনায়, মেডিক্য়ালের ৪ তলার কার্নিশে পা দোলাচ্ছে রোগী

ভুয়ো টেস্টের ফাঁদে পড়ে করোনায় মৃত্যু এক ব্য়াক্তির, গ্রেফতার প্রতারণা চক্রের ৩ জন

করোনায় ফের ১ এসবিআই কর্মীর মৃত্য়ু, মৃতের পরিবারকে চাকরি দেওযার দাবিতে ব্যাঙ্ক কর্মীরা

   পূর্ব ভারতের প্রথম সরকারি প্লাজমা ব্যাঙ্ক-কলকাতা মেডিকেল, করোনা রুখতে প্রস্তুতি তুঙ্গে

  মৃত্যুর পর ২ দিন বাড়ির ফ্রিজে করোনা দেহ, অভিযোগ 'সাহায্য মেলেনি স্বাস্থ্য দফতর-পুরসভার'