আমর্হাস্ট স্ট্রিট, বেকবাগানের ছায়া এবার  বেহালায়।  বেহালা সাহাপুর মেনরোডে করোনায় আক্রান্ত এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। এদিকে এখনও অবধি তাঁর দেহ বাড়িতে পড়ে রয়েছে।  বাকি ৬ সদস্যও করোনা আক্রান্ত, আতঙ্কিত এলাকাবাসী। প্রশাসনের কোনো হেলদোল নেই বলে অভিযোগ।

 

 


আরও পড়ুন, করোনা আতঙ্কে এগিয়ে এল না কেউ, ৬ ঘণ্টা ধরে পড়ে বিনা চিকিৎসায় মৃত্যু বৃদ্ধার

 
সূত্রের খবর, বেহালা সাহাপুর মেনরোডে করোনায় আক্রান্ত হয়ে রবিবার রাতের বেলায় এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। এদিকে এখনও অবধি তাঁর দেহ বাড়িতে পড়ে রয়েছে।  বাড়ির মধ্যে প্রায় ৬ জন লোক রয়েছে। তারাও করোনা আক্রান্ত। প্রশাসনের কোনো হেলদোল নেই বলে অভিযোগ। দেহ নিয়ে যাওয়ার জন্য কেউ আসছে না। কাউন্সিলর অশোকা মন্ডলকে ফোন করলে তাঁর থেকে কোনও সঠিক উত্তর পাওয়া যাচ্ছে না। এলাকায় আতঙ্ক স্থানীয় মানুষজন রীতিমত আতঙ্কে রয়েছে।

আরও পড়ুন, বিধান নগর দক্ষিণ থানায় করোনার থাবা, আক্রান্ত একসঙ্গে ৫ পুলিশ কর্মী

 প্রসঙ্গত, কলকাতায় এর আগেও রিপোর্ট নেগেটিভ  মৃত্য়ুর পরে  রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। জুলাই এর শুরুতে উত্তর কলকাতার আমর্হাস্ট স্ট্রিট এলাকায় মৃত্যুর পর ২ দিন ধরে বাড়ির ফ্রিজে পড়ে ছিল করোনায় মৃত ব্যক্তির দেহ। একাধিকবার বলেও স্বাস্থ্য দফতর ও পুরসভা থেকে সাহায্য মেলেনি বলে অভিযোগ উঠে এসেছিল। পাশপাশি জুলাই দ্বিতীয় সপ্তাহে  করেয়া থানার অন্তর্গত বেকবাগান এলাকাতেও একই অমানবিক দৃশ্য ফিরে আসে।  নিজের বাড়িতেই মৃত্যু হয় ৮০ বছরের বৃদ্ধার। মৃত্যুর পর ১৪ ঘণ্টা করোনা রোগীর দেহ পড়ে থাকে বাড়িতে। সেইবারও পরিবারের তরফে অভিযোগ এসেছিল পুলিশ এবং স্বাস্থ্য়ভবনের তরফে কোনও সাহায্য় আসেনি।

 

 

করোনায় ফের ১ এসবিআই কর্মীর মৃত্য়ু, মৃতের পরিবারকে চাকরি দেওযার দাবিতে ব্যাঙ্ক কর্মীরা

   পূর্ব ভারতের প্রথম সরকারি প্লাজমা ব্যাঙ্ক-কলকাতা মেডিকেল, করোনা রুখতে প্রস্তুতি তুঙ্গে

  মৃত্যুর পর ২ দিন বাড়ির ফ্রিজে করোনা দেহ, অভিযোগ 'সাহায্য মেলেনি স্বাস্থ্য দফতর-পুরসভার'

  অঙ্গপ্রত্যঙ্গ বিকলের পরও কোভিড জয়ী ৫৪-র দুধ ব্যবসায়ী, শহরকে দিলেন এক সমুদ্র আত্মবিশ্বাস

কোভিড রোগী ফেরালেই লাইসেন্স বাতিল, হাসপাতালগুলিকে হুঁশিয়ারি রাজ্য়ের