করোনার থাবা পড়ল এবার পার্ক স্ট্রিট থানায়। করোনা আক্রান্ত এবার পার্ক স্ট্রিট থানার স্পেশাল ব্রাঞ্চের এক কর্মী। কলকাতা পুলিশে করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৯ হল। তাঁকে এই মুহূর্তে বাইপাসের ধারে এক বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

 আরও পড়ুন, স্টেট ব্য়াঙ্ক কলকাতার সদর দফতরের সমৃদ্ধি ভবনে আতঙ্ক, করোনা আক্রান্ত মুখ্য় আধিকারিক


উল্লেখ্য, মঙ্গলবার সকাল থেকেই অসুস্থ বোধ করতে থাকেন বছর আটচল্লিশের ওই পুলিশ অফিসার। এরপর রাতে শরীর আরও খারাপ বোধ হলে তাঁকে বাইপাসের ধারে এক বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাঁকে। গতকাল রাতেই তাঁর লালারসের নমুনা পরীক্ষার জন্য নাইসেডে পাঠানো হয়। এরপর তাঁর করোনা রিপোর্ট  পজেটিভ আসে।ইতিমধ্য়েই তাঁর সংস্পর্শে কারা কারা এসেছে, দ্রুত তাদের তালিকা বানানো চলছে। চিহ্নিত হলে তাদেরকে পাঠানো হবে কোয়ারেন্টটিনে। 

আরও পড়ুন, কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গে বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টির পূর্বাভাস, দুর্যোগ চলবে আগামী আরও ৪৮ ঘণ্টা

অপরদিকে, করোনার সংক্রমণের জেরে জোড়াবাগান ট্রাফিক গার্ডকে কনটেইনমেন্ট জোন হিসেবে চিহ্নিত করেছে লালবাজার। সম্প্রতি করোনায় আক্রান্ত হন জোড়াবাগান ট্রাফিক গার্ডের সার্জেন্ট। তারপরই ওই ট্রাফিক গার্ডের আরও কয়েকজনের জ্বর আসতে দেখা দেয়। এরপরই দ্রুত জোড়াবাগান ট্রাফিক গার্ডকে কনটেইনমেন্ট জোন হিসেবে চিহ্নিত করে লালবাজার। করোনা মোকাবিলায় সামনের সারিতে থেকে যাঁরা যুদ্ধ করছেন, তাঁদের মধ্যে অন্যতম হচ্ছে পুলিশ প্রশাসন। তাই একের পর এক পুলিশকর্মীর করোনায় আক্রান্ত হওয়ার ঘটনায়  বাহিনীর মনোবল মজবুত রাখতে  কড়া নজর দিচ্ছে লালবাজার।

 

 

রাজ্য়ে করোনা আক্রান্তের অর্ধেকের বেশি কলকাতার,৭০০ থেকে একদিনে ৭৫৪

করোনার থাবায় বন্ধ বাঘাযতীনের এক নার্সিংহোম, স্যানিটাইজেশনে বাঘাযতীন হাসপাতাল

শুধু কলকাতাতেই করোনা আক্রান্ত ৭০০, মহানগরকে ঘিরে ঘুম ছুটছে রাজ্য়বাসীর

করোনা উপসর্গ সহ মিজোরামের বাসিন্দার মৃত্য়ু হল কলকাতায়, ক্যানসারের জন্য় তিনি ছিলেন চিকিৎসাধীন

রাজ্যে করোনায় মৃত্যুর হারে দেশের শীর্ষে পশ্চিমবঙ্গ, বলছে কেন্দ্রের টিম

রোগী ফেলে পালাতে পারল না অ্যাম্বুল্যান্স, পিপিই পরা স্বাস্থ্য়কর্মীদেরকে তীব্র প্রতিবাদ নাকতলাবাসীর