রাজ্য সরকারি বাসে উঠতে হলেই যাত্রীদের থার্মাল চেকিং করা হবে।  বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই কলকাতার একাধিক জায়গায় বাস স্ট্যান্ডে পরীক্ষা করা হল থার্মাল গান দিয়ে। রাজ্য পরিবহন দফতর সূত্রে খবর, যদি থার্মাল গান দিয়ে পরীক্ষায় কোনও শারীরিক তাপমাত্রার তারতম্য ধরা পড়ে, তাহলে স্বাস্থ্য কর্মীদের বা পুলিশকে জানানো হবে।

আরও পড়ুন, সোমবার থেকে শহরে চালু বেসরকারি বাস, দ্বিগুন ভাড়া বাড়ানোর সিদ্ধান্তে ক্ষতির আশঙ্কায় মালিকরাই

পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য পরিবহন নিগম কলকাতার জন্য মোট ১৫টি রুটে বাস পরিষেবা চালু করেছে। সকাল ৭টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত চলাচল করছে এই বাসগুলি। কলকাতায় এই বাস পরিষেবা চালু  হয়েছে আপাতত ৬০টি বাস দিয়ে।   বাসগুলিকে প্রতিনিয়ত স্যানিটাইজ করা হচ্ছে। চালক ও কন্ডাক্টরদের মাস্কা, পিপিই, স্যানিটাইজার দেওয়া হয়েছে। নিয়মানুযায়ী, বাসে উঠতে পারবেন সর্বাধিক ২০ জন। কিন্তু প্রথম দিনের যাত্রায় দেখা গিয়েছিল সামাজিক দুরত্ব না মেনেই বাসে চলা ফেরা করছে। সরকারি বাসের এই ঘটনা জানতেই পরিবহণ মন্ত্রী গোটা বিষয়টি জানিয়েছেন কলকাতা পুলিশ কমিশনারকে। বিভিন্ন বাস স্ট্যান্ডে যাতে সরকারি বাসে ভিড় না হয় তা দেখতে বলেছেন। 

 আরও পড়ুন, করোনার থাবা কলকাতার পাইকারি ওষুধ বাজারেও, দোকান বন্ধে ওষুধ নিয়ে বড়সড় আশঙ্কা

পরিবহণ মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী জানিয়েছেন, 'স্বাস্থ্য সুরক্ষা বিধি মেনেই আমরা বাস চালাচ্ছি। বিভিন্ন জায়গায় পরিস্থিতি কি তার রিপোর্ট আমরা পেয়েছি। সেই মোতাবেক দফতর ব্যবস্থা নেবে।' অপরদিকে, চালক ও কন্ডাক্টরদের একাংশ জানিয়েছেন, যাত্রীদের বললেও তারা কথা শুনছেন না। জোর করে বাসে উঠে পড়ছেন। বারণ করতে গিয়ে কামালগাজিতে একজন বাস কন্ডাক্টর ও চালককে হেনস্থা করা হয়েছে বলে অভিযোগ।  

 

কোভিড হাসপাতালে স্বাভাবিক মৃত্য়ুতেও পরিবার চাইলে সৎকার করবে কলকাতা পৌরসভা, জানালেন ফিরহাদ

করোনা আক্রান্ত প্রাণ হারালেন এবার রাজ্যের এক আইনজীবী, এদিকে আইসোলেশনে তাঁর স্ত্রী

কোভিড পজিটিভ হয়ে মৃত্য়ু প্রখ্যাত ইতিহাসবিদ হরিশঙ্কর বাসুদেবনের

 বেহালা হাসপাতালের প্রসুতির শরীরে মিলল এবার করোনার জীবাণু, কেপিসি-র ৩ রোগীর রিপোর্টও পজিটিভ

রোগী ফেলে পালাতে পারল না অ্যাম্বুল্যান্স, পিপিই পরা স্বাস্থ্য়কর্মীদেরকে তীব্র প্রতিবাদ নাকতলাবাসীর