Asianet News BanglaAsianet News Bangla

Weather Report: ছট পুজোর সকালে শীতের আমেজ বাড়ল কলকাতায়, সপ্তাহান্তে বৃষ্টির আশঙ্কা

বুধবার সকাল থেকেই মেঘ মুক্ত পরিষ্কার আকাশ  শহর এবং শহরতলিতে।  আলিপুর আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর,  বুধবার আন্দামান সাগর ও দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগর উপরে একটি নিম্নচাপ তৈরি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

 

Rain fall  forecast  in Bengal over the weekend  due to the deep depression and  West Bengals temperature will  decreased  RTB
Author
Kolkata, First Published Nov 10, 2021, 7:46 AM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

বুধবার সকাল থেকেই মেঘ মুক্ত পরিষ্কার আকাশ (Clear Sky) শহর এবং শহরতলিতে। হাওয়া অফিস জানিয়েছে,  সপ্তাাহান্তে বৃষ্টির সম্ভাবনা (Rain) রয়েছে।রাজ্যের উপর দিয়ে উত্তর পশ্চিম দিকের শীতল হাওয়া প্রবেশ করছে।এই পরিস্থিতি আগামী ২৪ ঘন্টা পর্যন্ত বজায় থাকবে। । নতুন করে নিম্নচাপের আশঙ্কা বঙ্গোপসাগরে (Deep Depression on Bay of Bengal)। তাই বুধবার নাগাদ এই ঘূর্ণাবর্ত নিম্নচাপে পরিণত হবে (Deep Depression on Bay Of Bengal)। বুধবারের পরে ফের তাপমাত্রা বৃদ্ধির সম্ভাবনা রয়েছে।  

আরও পড়ুন, Chhath Puja 2021- দূষণের জেরে এবারও রবীন্দ্র সরোবরে বন্ধ ছট পুজো, বিকল্পে শহরে আরও ১৭০ ঘাট

আলিপুর আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর,  বুধবার আন্দামান সাগর ও দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগর উপরে একটি নিম্নচাপ তৈরি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগরে নিম্নচাপ ক্রমশ পশ্চিম ও উত্তর পশ্চিম দিকে এগিয়ে আরো শক্তিশালী হয়ে তামিলনাড়ু উপকূলের দিকে এগোবে। সরাসরি প্রভাব না পড়লেও পরোক্ষ প্রভাবে পূবালী হাওয়ায় প্রচুর জলীয় বাষ্প ঢুকতে পারে রাজ্যে। দক্ষিণবঙ্গের উপকূলের জেলাগুলিতে আবহাওয়ার পরিবর্তন হতে পারে আগামী সপ্তাহের শেষ দিকে।দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগরে তৈরি নিম্নচাপ দক্ষিণ-পূর্ব আরব সাগরে অবস্থান করছে। এটি ক্রমশ  উত্তর পশ্চিম দিকে এগিয়ে পূর্ব মধ্য আরব সাগরের দিকে যাবে। এটি শক্তি বাড়িয়ে  উত্তর-পশ্চিম দিকে এগোবে। শক্তিশালী নিম্নচাপ রূপে অবস্থান করতে পারে। এছাড়াও দুটি অক্ষরেখা রয়েছে তামিলনাড়ু ও অন্ধ্রপ্রদেশ উপকূলে এবং ঘূর্ণাবর্ত রয়েছে মহারাষ্ট্র উপকূলে। 

 আরও পড়ুন, Municipal Election: ১৯ ডিসেম্বরই পুরভোট কলকাতা-হাওড়ায়, রাজ্য সরকারের প্রস্তাবে সম্মতি কমিশনের

আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর,   পূর্বদিকে জলীয় বাষ্পপূর্ণ বাতাসের প্রভাব বাড়বে পশ্চিমবঙ্গে। সেই সময় রাতের তাপমাত্রা বাড়তে শুরু করবে। আপাতত ১০ তারিখ পর্যন্ত তাপমাত্রা কমই থাকবে বিশেষ করে রাতে ও ভোরের বেলায় শীতের আমেজ বজায় থাকবে। দিনের বেলায় আবার তাপমাত্রা বাড়বে। ১৩ ও ১৪ তারিখ নাগাদ উপকূলীয় জেলাগুলোতে খুব সামান্য হালকা বৃষ্টি হতে পারে। বাদবাকি জায়গায় মেঘলা আকাশ থাকবে।উত্তরবঙ্গের ক্ষেত্রে দার্জিলিংয়ের তাপমাত্রা অনেকটাই ডিগ্রি নিচে নেমে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। শুষ্ক ও শীতল আবহাওয়া থাকবে । আগামী কয়েকদিনে রাতের তাপমাত্রা কিছুটা কমবে। শীতের আমেজ কিছুটা বাড়বে সঙ্গে সকালের দিকে কুয়াশার দাপটও বাড়বে।

হাওয়া অফিসের তরফে আরও জানানো হয়েছে, এই মুহূর্তে রাজ্যে ও গোটা পূর্ব ভারতে উত্তর-পশ্চিমে শীতল হাওয়ার প্রভাবে তাপমাত্রা অনেকটা নেমে গিয়েছে। এই হাওয়া বেশ কয়েকদিন প্রবেশ করবে এবং এর প্রভাবে  রাজ্যে রাতের তাপমাত্রা স্বাভাবিকের নিচে থাকবে। রাতের তাপমাত্রা ২২ ডিগ্রি কাছাকাছি থাকবে। কয়েকটা পশ্চিমে জেলাগুলিতে দেখা গিয়েছে তাপমাত্রা কমতে শুরু করেছে। কলকাতাতেও দু-একদিনের মধ্যে আরও ১ থেকে ২ ডিগ্রি তাপমাত্রা কমবে। কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গের ক্ষেত্রে সকালের দিকে শীতের আমেজ থাকবে। দিনের বেলায় রোদ থাকবে এবং দিনের বেলা তাপমাত্রা ৩০ থেকে ৩২ ডিগ্রির কাছাকাছি থাকবে। কালীপুজোর ক্ষেত্রে আকাশ পরিষ্কার থাকবে। 

 আরও পড়ুন, Biswa Bangla Global Summit: 'শিল্পই ভবিষ্যত', দুই বছর পর ফের বিশ্ব বাংলা বাণিজ্য সম্মেলন রাজ্যে

শহর ও শহরতলির তাপমাত্রা স্বাভাবিকের বেশি হলেও এদিন সর্বোচ্চ-সর্বোনিম্ন তাপমাত্রা সামান্য কমেছে।  আলিপুর আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর, বুধবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩০.৪ ডিগ্রি সেলসিয়ার্স। স্বাভাবিকের থেকে ১ ডিগ্রি নীচে। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল  ১৯.৭ ডিগ্রী। স্বাভাবিকের থেকে ১ ডিগ্রি নীচে।অপরদিকে, এদিন শহরের বাতাসে জলীয়বাষ্পের  সর্বোচ্চ পরিমাণ ছিল ৯৬ শতাংশ।   সর্বনিম্ন ৪৩  শতাংশ ছিল বলে জানিয়েছে হাওয়া অফিস।  মঙ্গলবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩০.৬ ডিগ্রি সেলসিয়ার্স।  সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল  ১৮.২ ডিগ্রী। স্বাভাবিকের থেকে ২ ডিগ্রি নীচে।অপরদিকে, এদিন শহরের বাতাসে জলীয়বাষ্পের  সর্বোচ্চ পরিমাণ ছিল ৯৩ শতাংশ।   সর্বনিম্ন ৪২  শতাংশ ছিল বলে জানিয়েছে হাওয়া অফিস। রবিবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩২.৩ ডিগ্রি সেলসিয়ার্স। স্বাভাবিকের থেকে ১ ডিগ্রি উপরে। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল  ২৩.৫ ডিগ্রী। স্বাভাবিকের থেকে ১ ডিগ্রি নীচে।অপরদিকে, এদিন শহরের বাতাসে জলীয়বাষ্পের  সর্বোচ্চ পরিমাণ ছিল ৮৮ শতাংশ।   সর্বনিম্ন ৪৮  শতাংশ ছিল বলে জানিয়েছে হাওয়া অফিস।  

আরও দেখুন, বিরিয়ানি থেকে তন্দুরি, রইল কলকাতার সেরা খাবারের ঠিকানার হদিশ  

আরও দেখুন, কলকাতার কাছেই সেরা ৫ ঘুরতে যাওয়ার জায়গা, থাকল ছবি সহ ঠিকানা  

আরও দেখুন, মাছ ধরতে ভালবাসেন, বেরিয়ে পড়ুন কলকাতার কাছেই এই ঠিকানায়  

আরও পড়ুন, ভাইরাসের ভয় নেই তেমন এখানে, ঘুরে আসুন ভুটানে  

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios