ফের শিরোনামে কলকাতা মেডিক্যাল। কলকাতা মেডিক্যালে করোনা  আক্রান্ত এক রোগিনীর কাছ থেকে গয়না চুরি করল এবার পিপিই পরা ২ দুষ্কৃতী। নার্স তৎপর হতেই পিপিই পরা সেই লোকটি পালিয়ে যায়। শেষ পর্যন্ত তার পিপিই খুলে দেখা যায় অভিযুক্ত হাসপাতালেরই এক চতুর্থ শ্রেণির কর্মী। এরপরেই অভিযুক্তদের ধরে বউবাজার থানার পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়। 

আরও পড়ুন, শহরবাসীর প্রাণ বাঁচালেন ইবি-র অফিসারেরা, উদ্ধার ১৪০০ লিটার ভেজাল স্যানিটাইজার, গ্রেফতার ২

সুপার স্পেশালিটি বিল্ডিংয়ে ৭৭২ নম্বর বেডে চিকিৎসাধীন রোগীর সঙ্গে এই ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় ব্যাপক তল্লাশি চলছে মেডিকেলে। চলছে ধরপাকড়। পুলিশ সূত্রে খবর, দুপুরে ছিনতাইয়ের ঘটনা নজরে আসে এক নার্সের। তিনি কৈফিয়ত চাইতেই পিপিই পরে থাকা দুই দুষ্কৃতী পালাতে থাকে। তাড়া করেও ধরতে পারেননি পিপিই পরে থাকা ওই নার্স। তিনি খবর দেন সুপারের অফিসে। জানা গিয়েছে, চিকিৎসাধীন ওই রোগিণীর বাড়ি বসিরহাটে। বয়স ৪৮ বছর।

আরও পড়ুন, নাসায় বাঙালি গবেষকের জয়, 'মঙ্গল মিশন'-র অন্যতম সদস্য কলকাতার চিরঞ্জিত


তবে চোর শেষ অবধি ধরাই পড়ে যায়। এরপর নিরাপত্তারক্ষী ও অন্যরা মিলে তাদেরকে ধরে ফেলেন। পিপিই খোলামাত্র দেখা যায়, সে হাসপাতালেরই চতুর্থ শ্রেণীর ক্যাজুয়াল কর্মী। তাকে হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়িতে নিয়ে গিয়ে বউবাজার থানায় খবর দেওয়া হয়।ছিনতাইয়ের ঘটনায় করোনা আক্রান্ত চিকিৎসাধীন রোগী কলকাতা মেডিকেল কলেজের সুপারের কাছে প্রথমে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। এই ঘটনায় পুলিশ অভিযুক্তদের দফায় দফায় জিজ্ঞাসাবাদ করেছে। ধৃতের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

 

 

করোনায় ফের ১ এসবিআই কর্মীর মৃত্য়ু, মৃতের পরিবারকে চাকরি দেওযার দাবিতে ব্যাঙ্ক কর্মীরা

   পূর্ব ভারতের প্রথম সরকারি প্লাজমা ব্যাঙ্ক-কলকাতা মেডিকেল, করোনা রুখতে প্রস্তুতি তুঙ্গে

  মৃত্যুর পর ২ দিন বাড়ির ফ্রিজে করোনা দেহ, অভিযোগ 'সাহায্য মেলেনি স্বাস্থ্য দফতর-পুরসভার'

  অঙ্গপ্রত্যঙ্গ বিকলের পরও কোভিড জয়ী ৫৪-র দুধ ব্যবসায়ী, শহরকে দিলেন এক সমুদ্র আত্মবিশ্বাস

কোভিড রোগী ফেরালেই লাইসেন্স বাতিল, হাসপাতালগুলিকে হুঁশিয়ারি রাজ্য়ের