অভিনব কায়দায় ছিনতাই যশোর রোডে। পুলিশ আধিকারিকের পরিচয় দিয়ে লকডাউনের যুক্তি দিয়ে মিতা মজুমদার নামে এক মহিলার থেকে সোনা নিয়ে টম্পট দিল চোর। কিছু বুঝে ওঠার আগেই সমস্ত সোনার গয়না একলহমায় হাওয়া। এই ঘটনায় তদন্তে নেমেছে বিমান বন্দর থানার পুলিশ।

আরও পড়ুন, কোভিডের থাবা এবার পিএনবি-র ব্রেবোর্ন রোড শাখায়, আক্রান্ত হলেন বছর আঠাশের এক অফিসার


জানা গিয়েছে, মিতা মজুমদার নামে এক মহিলা, ছেলেকে দেখতে হাসপাতাল যাচ্ছিলেন। সেই সময় দুটি বাইকে করে চার বাইক আরোহী তাদের রাস্তা আটকে ধরেন। মিতা দেবীকে বলেন লকডাউনে সোনার জিনিস পরে বাইরে বেরোনো যাবে না। এখানেই শেষ নয় নিজেদের পরিচয় দেয় পুলিশ আধিকারিক বলে। এরপর মিতা দেবীকে বলা হয় সোনার জিনিস খুলে ব্যাগের ভিতর রাখতে। এরপর মিতা দেবী ব্যাগের ভিতর সোনার জিনিস খুলে রেখে গাড়ি নিয়ে আবার ডাক্তার খানার উদ্যেশে রওনা দেয়। তারপর বাইক আরোহীরা ফের মিতা দেবীর পথ আটকায়।   'আপনার নাম ও কি কি জিনিস রাখলেন, তা খাতায় লিখতে হবে' বলে ফের দেখতে চান। তারপর সোনার জিনিস গুলো নিয়ে চম্পট দেয় বাইক আরোহীরা।

আরও পড়ুন, রাজ্য় ভাড়া বৃদ্ধির পক্ষে নয়, বাস মালিকদের বলে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী

এরপর ঘটনার কথা জানতে পেরে তদন্তে নামে বিমান বন্দর থানার পুলিশ। যশোর রোডের ওই এলাকায় সিসিটিভি লাগানো ছিল।  ইতিমধ্য়েই ওই  সিসিটিভি ফুটেজ ভাল করে দেখা হয়েছে। পুরো ঘটনাটাই খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

 

 

কোভিড রোগী ফেরালেই লাইসেন্স বাতিল, হাসপাতালগুলিকে হুঁশিয়ারি রাজ্য়ের

 কলকাতায় একদিনে চিহ্নিত প্রায় ২০০ বাড়ি, কনটেইনমেন্ট জোন বৃদ্ধির কারণ বললেন মুখ্যসচিব

 করোনায় সুরক্ষাবিধি নিয়ে বিক্ষোভের জের, বদলি ১৩ পুলিশকর্মীর

করোনা আক্রান্ত নিজাম প্যালেসের এক সিবিআই আধিকারিক, স্যানিটাইজ করা হল পুরো অফিস

করোনা আবহে সুরজিৎ কর পুরকায়স্থের প্রাক্তন স্ত্রী-শাশুড়ির দেহ উদ্ধার, তদন্তে পুলিশ

দেহ রাখার জায়গা না থাকায় ডিপ ফ্রিজ বসছে মেডিকেলের মর্গে, মৃতদেহ 'ম্যানেজমেন্ট'-এ নিয়োগ অ্যাসি