করোনা আক্রান্তের পাশে থাকতে নয়া পদক্ষেপ কলকাতা পুরসভার। এবার কেউ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এমন সন্দেহ হলেই সরাসরি ফোন করতে পারবেন কলকাতা পুরসভার বরোভিত্তিক নিজস্ব কলসেন্টারে। এবং এই কলসেন্টারে পরিষেবা দেবে বাংলার করোনাজয়ীরা।

আরও পড়ুন, পার্ক সার্কাস থেকে মেডিক্যাল ৯০০০ টাকা, দিতে না পারায় কোভিড শিশুদের নামিয়ে দিল অ্যাম্বুল্যান্স


সূত্রের খবর, করোনাজয়ীদের নিয়ে কলকাতায় চালু হল কলসেন্টার। আর এবার করোনা আক্রান্তের ফোনে উত্তর দেবে করোনাজয়ী প্রশিক্ষিত কোভিড যোদ্ধা। এমনকি ঠিকানা জেনে মোটরবাইক নিয়ে দ্রুত পৌঁছে যাবেন অসুস্থের বাড়িতে। রোগীর প্রাথমিক চিকিৎসা করবেন এবং ফোনে চিকিৎসকের সঙ্গে কথা বলে প্রয়োজনে ওষুধও দেবেন। যদি হাসপাতালে তখনই ভরতির প্রয়োজন হয় তারও চটজলদি ব্যবস্থা করবেন করোনাজয়ী ওই যোদ্ধারা। অ্যাম্বুল্যান্স তক্ষুণি না পাওয়া গেলে কোভিড যোদ্ধার সঙ্গের বাইকই অ্যাম্বুল্যান্সের কাজ করবে, পৌঁছে দেবে হাসপাতালে।

আরও পড়ুন, করোনা পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে ফের কলকাতায় আসছে কেন্দ্রীয় দল, তথ্য জোগাড়ে অ্যাপ-র পরামর্শ


অপরদিকে, কলকাতা  পুরসভার ১৬টি বরোতেই চালু হচ্ছে এই কলসেন্টার। করোনা রোগীর ভরতি ও দ্রুত চিকিৎসা নিয়ে কলকাতায় যে সমস্ত অভিযোগ উঠেছে তা ১৬টি কলসেন্টার চালুর মাধ্যমে মিটিয়ে ফেলতে পুরমন্ত্রীর এমন পরিকল্পনা। যেহেতু ওই কোভিড যোদ্ধারা এখন পুরোপুরি সুস্থ, তাই তাঁদের শরীরে মারণ ভাইরাস প্রতিরোধী অ্যান্টিবডি তৈরি হয়ে আছে। বস্তুত এই কারণেই করোনা আক্রান্ত সন্দেহভাজন রোগীর কাছে গেলে কোনও ঝুঁকি থাকবে না। কিন্তু যদি স্বাস্থ্যকর্মীরা বাইক নিয়ে গেলে ওই সন্দেহভাজন রোগীর থেকে নতুন করে করোনা আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলেই এমন পরিষেবায় কোভিডজয়ীদের নিয়োগ করছে পুরসভা।

 

 

করোনায় ফের ১ এসবিআই কর্মীর মৃত্য়ু, মৃতের পরিবারকে চাকরি দেওযার দাবিতে ব্যাঙ্ক কর্মীরা

   পূর্ব ভারতের প্রথম সরকারি প্লাজমা ব্যাঙ্ক-কলকাতা মেডিকেল, করোনা রুখতে প্রস্তুতি তুঙ্গে

  মৃত্যুর পর ২ দিন বাড়ির ফ্রিজে করোনা দেহ, অভিযোগ 'সাহায্য মেলেনি স্বাস্থ্য দফতর-পুরসভার'

  অঙ্গপ্রত্যঙ্গ বিকলের পরও কোভিড জয়ী ৫৪-র দুধ ব্যবসায়ী, শহরকে দিলেন এক সমুদ্র আত্মবিশ্বাস

কোভিড রোগী ফেরালেই লাইসেন্স বাতিল, হাসপাতালগুলিকে হুঁশিয়ারি রাজ্য়ের