মেট্রোরেলের অনুষ্ঠানে ডাক না পেয়ে যা না কষ্ট পেয়েছেন, তার থেকে বেশি কষ্ট পেয়েছেন কেজরিওয়ালের শপথ গ্রহণে ডাক না পেয়ে। দিল্লিতে আপ-এর জয় নিয়ে ফের তৃণমূল নেত্রীকে খোঁচা দিলেন দিলীপ ঘোষ। বিজেপির রাজ্য় সভাপতি  বলেন, দিল্লিতে যাতে আপ জেতে তার জন্য উপবাস করে কালীঘাটে পুজো দিয়েছেন মমতা। কিন্তু শপথগ্রহণে তাঁকেই ডাকলেন না কেজরিওয়াল। যাদের এক জায়গায় করে সর্বভারতীয় নেত্রী হতে চেয়েছিলেন, তারাই আজ পাত্তা দিতে চাইছে না। 

এবার কিডনিতেও ছড়াল সংক্রমণ, পোলবায় জখম ঋষভের অবস্থার আরও অবনতি

রবিবার দিল্লির রামলীলা ময়দানে তৃতীয়বারের মতো মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথগ্রহণ করেন আম আদমি পার্টি-র প্রধান অরবিন্দ কেজরিওয়াল। সকাল ১১:৫০-এ রামলীলা ময়দানে এসে পৌঁছন তিনি। তবে রাজনৈতিক কৌশল মেনে ডাকা শপথ গ্রহণে ডাকা হয়নি কোনও রাজ্য়ের মুখ্যমন্ত্রীকে। এদিন যা নিয়ে তৃণমূল নেত্রীকে কটাক্ষ করতে ছাড়েননি দিলীপ ঘোষ। রবিবার পূর্ব মেদিনীপুরের তমলুকে সাংগঠনিক বৈঠকের পর দিলীপবাবু বলেন, এক সময় এদেরকে জড়ো করে নিজে বিরোধী জোটের নেতৃত্ব দিতে গিয়েছিলেন । এখন তারাই হাত  ছাড়ছে। কারণ তারাও সব বুঝে গিয়েছে। 

তাপস সহ তিন মৃত্যুর জন্য দায়ী কেন্দ্র, বিস্ফোরক অভিযোগ করলেন মুখ্যমন্ত্রী

দেশের রাজনীতির ইতিহাস বলছে, কেজরিওয়ালের সঙ্গে ভালো সম্পর্ক তৃণমূল নেত্রীর। অতীতে ফেডেরাল ফ্রন্টের মঞ্চে পাশাপাশি দেখা গেছে অরবিন্দ-মমতাকে। তাই দিল্লির জয়ে বিজেপি  বিরোধী জোট আরও গতি পাবে বলেই ভেবেছিলেন অনেকেই। ভাবা হয়েছিল, তৃতীয়বার কেজরিওয়াল মুখ্য়মন্ত্রী পদে শপথ নেওয়ার অনুষ্ঠানে ডাকা হবে সব রাজ্য়ের মুখ্য়মন্ত্রীকে। তা না হলেও বিজেপি বিরোধী রাজ্য়ের মুখ্য়মন্ত্রী ও নেতারা স্থান পাবেন রামলীলা ময়দানে। যদিও জয়ের পরেই সেই আশায় জল ঢেলে দেন আপ-এর বরীষ্ঠ নেতা গোপাল রাই। স্পষ্টতই তিনি  জানিয়ে দেন , কেজরির শপথে আগ্রাধিকার পাবে কেবল দিল্লিবাসী।

কী গল্প কলকাতাকে শোনাল রোবট কন্যা সোফিয়া, দেখুন সেরা ১২ ছবি