করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে দেশ জুড়ে এগয়ে আসছেন বিভিন্ন ক্ষেত্রের বিষিষ্টরা। এদের ক্রীড়া ব্যক্তিত্বরা অন্যতম। সচেতনতার প্রচার চালানোর পাশাপাশি আর্থিক সাহায্যও করছে ক্রিকেটার থেকে, ফুটবলার, অ্যাথলিটরা। এবার করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে এগিয়ে এলেন তারকা অ্যাথলিট হিমা দাস। নিজের একমাসের বেতন অসম সরকারকে দান করলেন হিমা দাস। যা খরচ হবে করোনার ত্রাণ তহবিলে।

আরও পড়ুনঃকরোনা মোকাবিলায় মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে বেতন ও পেনশন দান লক্ষ্মীরতন শুক্লার

আরও পড়ুনঃলকডাউনে সকলকে বাড়িতে থেকে সরকারকে সাহায্য করার অনুরোধ সামির

এই প্রথম নয়, দেশে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ দেখা দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে সচেতনতা মূলক প্রচারে নামেন হিমা দাস। সোশাল মিডিয়ায় একাধিক সচেতনতামূলক পোস্ট করেন এশিয়ান গেমসে সোনা জয়ী অ্যাথলিট। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার দেওয়া সেফ হ্যান্ড চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করে ভিডিও বানান ৪০০ মিটারে অনূর্ধ্ব-২০ বিভাগে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হিমা দাস। বর্তমানে গুয়াহাটিতে  ইন্ডিয়ান অয়েলে কাজ করেন তিনি। টুইটে তিনি জানিয়েছেন, “বন্ধুরা, এখন একত্রিত হওয়া দরকার। যাঁদের প্রয়োজন, তাঁদের পাশে থাকতে হবে। আমি এক মাসের বেতন অসম আরোগ্য নিধি অ্যাকাউন্টে অসম সরকারকে দান করছি। করোনায় আক্রান্তরা যাতে নিরাপদে থাকেন, সেটাই লক্ষ্য।”

 

 

নিজের একমাসের বেতন করোনা তহবিলে দেওয়ার ঘোষণার পরই হিমা দাসকে সাধুবাদ জানান কেন্দ্রীয় ক্রীড়া মন্ত্রী কিরেণ রিজিজু। সোশাল মিডিয়ায় কেন্দ্রীয় ক্রীড়া মন্ত্রী জানান, আপনার কঠোর পরিশ্রমের অর্থ অনেক বেশি এবং তা ভাল উদ্দ্যেশ্যে ব্যবহৃত হবে।

 

 

এর আগে ক্রীড়াবিদদের মধ্যে সচিন তেন্ডুলকর,সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়, পিভি সিন্ধু, বজরং পুনিয়া সহ একাধিক ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব করোনা আক্রান্তদের সাহায্যে এগিয়ে এসেছেন। এ বার হিমাও যোগ দিলেন এই তালিকায়। অসম ক্রিকেট সংস্থা আবার বর্ষাপাড়া স্টেডিয়ামকে কোয়রান্টিন কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহার করার প্রস্তাব দিয়েছিল রাজ্য সরকারকে। যদিও অসমে এখনও পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত কারও সন্ধান মেলেনি। তবে অসম সরকার কোনও ঝুঁকি না নিয়ে সতর্ক থাকছে। হিমার এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানানো হয়েছে অসম সরকারের পক্ষ থেকে।

আরও পড়ুনঃকরোনা ভাইরাসের সঙ্গে লড়াইয়ে সামিল হলেন মাস্টার ব্লাস্টার, দিলেন ৫০ লক্ষ টাকা