দীর্ঘ দুই মাস পরে সোমবার কলেজ স্ট্রিটে বইপাড়া খুলছে। কলেজ স্ট্রিটের বই ব্যবসায়ী ও প্রকাশকেরা জানাচ্ছেন, লকডাউন এবং ঘূর্ণিঝড়ের কারণে তাঁরা বিধ্বস্ত। এর মধ্যে একটু হলেও আশার আলো বইপাড়া খোলার অনুমতি পাওয়া। 

আরও পড়ুন, ৪০ কিমি বেগে বইবে ঝোড়ো হাওয়া, ভারী বৃষ্টিতে ভাসতে চলেছে উত্তরবঙ্গ


প্রকাশক এবং বই বিক্রেতারা জানাচ্ছেন, স্থানীয় পুলিশ-প্রশাসনের সঙ্গে বৈঠকের পরে তাঁরা দোকান খোলার অনুমতি পেয়েছেন। করোনা রুখতে স্বাস্থ্য় মেনেই দোকান খোলা হবে বলে জানিয়েছেন বই ব্যবসায়ীরা। তবে এ দিন ইদের কারণে অবশ্য বইপাড়া ছুটি। তাই সোমবার হয়তো সব দোকান খুলবে না। মঙ্গলবার থেকে সব দোকান খুলবে বলেই আশা করছেন ব্যবসায়ী ও প্রকাশকেরা। প্রসঙ্গত আমফানের তাণ্ডবে শেষ কলেজস্ট্রিটের কোটি টাকার বই। এদিকে লকডাউনের জন্য অনেক বিক্রেতাই বাড়ি চলে গিয়েছেন। তাই ঝড় শেষ হলেও কলেজ স্ট্রিট আসতেও পারেননি তাঁরা। দেরী হওয়ার কারণে ভেজা বই উদ্ধার করার যেটুকু সম্ভাবনাও নষ্ট হয়ে যায়। কলেজ স্ট্রিটের বই ব্যবসায়ী ও প্রকাশকেরা জানিয়েছেন, এমন ভয়াবহ পরিস্থিতি তাঁরা আগে দেখেননি। আর্থিক সাহায্য চেয়ে মুখ্যমন্ত্রী ও প্রধানমন্ত্রীকে চিঠিও লিখেছেন গিল্ডের সম্পাদক।

আরও পড়ুন, নতুন করে কলকাতায় আরও বাসরুট খোলার সম্ভাবনা, ৪৯ রুটে মিলতে পারে পরিষেবা

 পাবলিশার্স অ্যান্ড বুক সেলার্স গিল্ডের সাধারণ সম্পাদক সুধাংশুশেখর দে বলেন যে, 'খুবই ভাল খবর। তবে শুধু দোকান খুললেই চলবে না। পরিবহণ ব্য়বস্থাও স্বাভাবিক হতে হবে। আমাদের বই ব্যবসায়ী ও অনেক প্রকাশক ট্রেনে, বাসে করে অনেক দূর থেকে আসেন। অনেকে ট্যাক্সি করে আসেন। বই কিনতেও অনেকে বহু দূর থেকে আসেন।'

 

 রাজ্য়ে একদিনে সর্বোচ্চ সংক্রমণ, করোনা আক্রান্তের সংখ্য়া ছাড়াল ২০০

দেহ রাখার জায়গা না থাকায় ডিপ ফ্রিজ বসছে মেডিকেলের মর্গে, মৃতদেহ 'ম্যানেজমেন্ট'-এ নিয়োগ অ্যাসিস্ট্যান্ট

কোভিড হাসপাতালে স্বাভাবিক মৃত্য়ুতেও পরিবার চাইলে সৎকার করবে কলকাতা পৌরসভা, জানালেন ফিরহাদ

কোভিড পজিটিভ হয়ে মৃত্য়ু প্রখ্যাত ইতিহাসবিদ হরিশঙ্কর বাসুদেবনের

রোগী ফেলে পালাতে পারল না অ্যাম্বুল্যান্স, পিপিই পরা স্বাস্থ্য়কর্মীদেরকে তীব্র প্রতিবাদ নাকতলাবাসীর