প্রথম করোনা আক্রান্ত পুলিশ কর্মীর মৃত্যু হল কলকাতায়। শনিবার কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে মৃত্যু হয় তাঁর। ৪৭ বছর বয়সী ওই পুলিশকর্মী কলকাতা পুলিশের সাউথ ডিভিশনের ডিআরও-তে কর্মরত ছিলেন। সম্প্রতি তাঁর করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ আসতেই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।  শনিবার তাঁর মৃত্যু হয়। কতজন ওই মৃত পুলিশকর্মীর সংস্পর্শে এসেছিলেন, সেটা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

আরও পড়ুন, করোনা আবহে সুরজিৎ কর পুরকায়স্থের প্রাক্তন স্ত্রী-শাশুড়ির দেহ উদ্ধার, তদন্তে পুলিশ


কলকাতা পুলিশের কনস্টেবল পদে কর্মরত বছর আটচল্লিশের ওই কর্মীর বাড়ি শিলিগুড়ি। স্ত্রী সিঁড়ি থেকে পড়ে গিয়েছেন খবর পেয়েই সপ্তাহখানেক আগে বাড়ি যান তিনি। সেখান  ১ জুন আবার কলকাতায় ফিরে আসেন। এরপর তাঁর শ্বাসকষ্ট ও জ্বর উপসর্গ দেখা দেয়। তাঁর লালারস সংগ্রহ করে পরীক্ষায় পাঠানো হয়। ৩ তারিখ করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসে। দ্রুতই তাঁকে কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। অনুমান, কলকাতা থেকে শিলিগুড়ি যাতায়াতের সময়েই কলকাতা পুলিশের ওই কনস্টেবলের শরীরে করোনার সংক্রমণ ঘটেছে।

আরও পড়ুন, ৮ জুন থেকে খুলছে কলকাতা মেডিক্যালের আউটডোর, কোভিড হাসপাতাল হওয়ায় সংক্রমণ রুখতে বৈঠক

পুলিশ সূত্রে খবর, সাউথ ডিভিশনের ডিআরও-তে ওই কনস্টেবল কর্মরত ছিলেন। উল্লেখ্য়, কলকাতা পুলিশে থানার পর থানা করোনায় আক্রান্ত।  ইতিমধ্য়েই  কলকাতা পুলিশে করোনা আক্রান্ত ১০০ ছাড়িয়েছে। এর মধ্যে আগেই সুস্থ হয়েছেন ৪০ জন করোনা আক্রান্ত পুলিশকর্মী। গত সোমবার আরও ১৬ জন পুলিশকর্মী সুস্থ হয়ে ফিরছেন বাড়িতে। তবে তাদের মধ্য়েই অনেকেই আবার সুস্থ হয়ে কাজেও যোগ দিয়েছেন। তবে শেক্সপিয়র থানায় কর্তব্যরত এই কনস্টেবলের আর কাজে ফেরা হল না।

 

 

 পিটিএসে নতুন করে আক্রান্ত আরও ৮, করোনা মুক্ত হয়ে কাজে ফিরলেন ১০০ পুলিশ কর্মী

বাংলাদেশ ফেরৎ ২ যাত্রী করোনা পজিটিভ, কোয়ারান্টিনের পর আক্রান্ত হওয়ায় চিন্তায় স্বাস্থ্য দফতর

 কলকাতা মেডিক্যালের ছাদের কার্নিশে বসে করোনা রোগী, সামলাতে গিয়ে নাজেহাল কর্তৃপক্ষ

করোনা মোকাবিলায় বড়সড় উদ্য়োগ, পরিষেবা বাড়াতে ৫০০ ডাক্তার-নার্স নিচ্ছে রাজ্য

দেহ রাখার জায়গা না থাকায় ডিপ ফ্রিজ বসছে মেডিকেলের মর্গে, মৃতদেহ 'ম্যানেজমেন্ট'-এ নিয়োগ অ্যাসিস্ট্যান্ট