দরজার কড়া নাড়ছে ভোট। আর ততোই  টিম পিকের তরফে রাজ্যের সিপিএম তথা বামপন্থী নেতাদের কাছে ফোন যাচ্ছে।  এদিকে ওপারে তাঁরা ফোন তুললেও মন সরাননি একচুলও।  তাই  প্রত্যাখ্যত হয়েই বারবার ফিরছে  প্রশান্ত কিশোরের দলবল। এবার ফেরালেন রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী দেবেশ দাস। দলে ঢোকা তো দূরের কথা, 'আদর্শ'-র কথা শুনিয়ে সোজা 'ভবিষ্যতে আর আমাকে বিরক্ত না করাই ভাল' বলে জানান রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী।  

আরও পড়ুন, কী পরীক্ষা করলে কোভিডের নিশ্চিত খবর মেলে, জানালেন রাজ্যের জন স্বাস্থ্য আধিকারিক

প্রসঙ্গত, একুশের নির্বাচনের আগে তৃণমূলে যোগ দেওয়া প্রস্তাব নিয়ে ইতিমধ্যেই রাজ্যের সিপিএম তথা বামপন্থী নেতাদের কাছে অনেক  ফোন গিয়েছে। এবার রাজ্যের প্রাক্তন তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী তথা যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক দেবেশ দাসকে তৃণমূলে যোগ দেওয়া প্রস্তাব নিয়ে ফোন করা হয়। ফোনে তাঁকে বলা হয়,'আপনার মতো স্বচ্ছ ভাবমূর্তির এবং গ্রহণযোগ্য নেতা আমাদের প্রয়োজন।' প্রাক্তন মন্ত্রীর কাছে দেখা করার সময়ও চাওয়া হয়। কিন্তু  সেই প্রস্তাব স্পষ্ট নাকচ করে দিয়েছেন বলে দাবি রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রীর।

আরও পড়ুন, পরামর্শ না মানলেই বেসরকারি হাসপাতালের লাইসেন্স বাতিল, কড়া বার্তা কমিশনের


রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী দেবেশ দাস স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন,'মানুষ কেনা যায়, কিন্তু আদর্শ কেনা যায় না। আমরা যে আদর্শে বিশ্বাস করি, তাতে আপনাদের প্রস্তাবে সাড়া দেওয়া আমার পক্ষে সম্ভব নয়। তাই দেখা করেও কোনও লাভ হবে বলে মনে হয় না। ভবিষ্যতে আর আমাকে বিরক্ত না করাই ভাল।'উল্লেখ্য, এর আগে উত্তরবঙ্গের বেশ কয়েকজন সক্রিয় এবং নিস্ক্রিয় বামনেতাকে তৃণমূলে যোগের প্রস্তাব দিয়েছে  টিম পিকে। ফোন করা হয়েছে সিপিএমের প্রাক্তন বিধায়ক লক্ষীকান্ত রায়, জলপাইগুড়ির প্রাক্তন সাংসদ মহেন্দ্রকুমার রায়ের মতো বাম নেতাদের। সব ক্ষেত্রেই অবশ্য প্রত্যাখ্যাত হয়েছেন তাঁরা। 
 

    

 

কোভিড রোগী ভর্তিতে ৫০ হাজার টাকার বেশি নেওয়া যাবে না, নয়া নির্দেশিকা জারি রাজ্যের

ভয় নেই করোনায়, মেডিক্য়ালের ৪ তলার কার্নিশে পা দোলাচ্ছে রোগী

ভুয়ো টেস্টের ফাঁদে পড়ে করোনায় মৃত্যু এক ব্য়াক্তির, গ্রেফতার প্রতারণা চক্রের ৩ জন

করোনায় ফের ১ এসবিআই কর্মীর মৃত্য়ু, মৃতের পরিবারকে চাকরি দেওযার দাবিতে ব্যাঙ্ক কর্মীরা