সোমবার শহরের আকাশ আংশিক মেঘলা থাকবে। আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর, দক্ষিণা বাতাসে ভর করে প্রচুর জলীয় বাষ্প ঢুকছে রাজ্যে। এর প্রভাবেই ঝড়-বৃষ্টির সম্ভাবনা রাজ্যে। সোমবার থেকে বৃষ্টি বাড়বে উত্তরবঙ্গে। উল্লেখ্য়, রবিবার  মাঝরাতে ফের শুরু হয় ঝড়-বৃষ্টি। সারাদিন আকাশ আংশিক মেঘলা থাকার পর  রাত বাড়তেই বৃষ্টি নামে।  এদিকে কলকাতা ও পার্শ্ববর্তী অঞ্চলে এই ঝড়-বৃষ্টি শুরু হয়। এবার বাংলায় বর্ষা আসবে ১১ জুন নাগাদ।  এমনটাই জানাচ্ছে কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দফতর।  সোমবার কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৪.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে তিন ডিগ্রি কম।  এই কলকাতার তাপমাত্রা ২৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। 

আরও পড়ুন, দ্রুত খাতা জমার নির্দেশ, জুনেই মাধ্যমিকের ফল রাজ্য়ে


কলকাতায়  আকাশ মেঘলা থাকবে। হাওয়া অফিস জানিয়েছে, সোমবার কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৪.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে তিন ডিগ্রি কম।  এবং সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৫.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি কম।  শহরের বাতাসে আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ সর্বাধিক ৯২ শতাংশ। আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ ন্যূনতম ৫৩ শতাংশ। গতকাল রবিবার কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ২৫.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে দুই ডিগ্রি কম।  এবং সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৫.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।   শহরের বাতাসে আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ সর্বাধিক ৯২ শতাংশ। আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ ন্যূনতম ৫১ শতাংশ। শনিবার কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ২৭.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি বেশি।  এবং সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৪.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস।  যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি কম। 

আরও পড়ুন, সস্ত্রীক করোনা আক্রান্ত নিউ মার্কেট থানার এসআই, সংস্পর্শে আসা সবাই কোয়ারেন্টাইনে


  আরব সাগরে তৈরি হবে নিম্নচাপ। পরবর্তীতে তা অতি গভীর নিম্নচাপে পরিণত হবে। ৪ থেকে ৫ দিনের মধ্যে সেটি গুজরাট ও মহারাষ্ট্র উপকূল পৌঁছোবে। নিম্নচাপের টানে পয়লা জুন কেরলে বর্ষা প্রবেশের প্রবল সম্ভাবনা।  দক্ষিণবঙ্গের বেশ কিছু জেলায় ঝড় বৃষ্টির সম্ভাবনা। পশ্চিমের  জেলাগুলিতে ঝড়-বৃষ্টির সম্ভাবনা বেশি। আগামী কাল ঝড় বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের ওড়িশা সংলগ্ন জেলাগুলিতে। রবিবার থেকেই উত্তরবঙ্গে ভারী বৃষ্টি দার্জিলিং কালিম্পং জেলায়। উত্তরবঙ্গের প্রায় সব জেলাতেই ঝড় বৃষ্টির সম্ভাবনা। সোমবার থেকে বৃষ্টি বাড়বে উত্তরবঙ্গে।দার্জিলিং, কালিম্পং, আলিপুরদুয়ার, জলপাইগুড়ি, কোচবিহার জেলায় বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর। ঝাড়খণ্ডের রয়েছে একটি ঘূর্ণাবর্ত এছাড়াও দক্ষিণা বাতাসে ভর করে প্রচুর জলীয় বাষ্প ঢুকছে রাজ্যে। এর প্রভাবেই ঝড়-বৃষ্টির সম্ভাবনা রাজ্যে। উল্লেখ্য়, রবিবার  মাঝরাতে ফের শুরু হয় ঝড়-বৃষ্টি। সারাদিন আকাশ আংশিক মেঘলা থাকার পর  রাত বাড়তেই বৃষ্টি নামে।  এদিকে কলকাতা ও পার্শ্ববর্তী অঞ্চলে এই ঝড়-বৃষ্টি শুরু হয়। বাংলায় বর্ষা আসবে ১১ জুন নাগাদ। সাধারণত ১৫ জুন বাংলায় বর্ষা আসে। কিন্তু সাগরের হাওয়ার ধাক্কা এবং অপরদিকে আমফান এগিয়ে আনছে বাংলায় বর্ষা আগমনের সময়কে। এমনটাই জানাচ্ছে কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দফতর।

 

 

 

রাজ্য়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্য়া ছাড়াল ৫০০০, একদিনে আক্রান্ত ৩১৭ 

 করোনা মোকাবিলায় বড়সড় উদ্য়োগ, পরিষেবা বাড়াতে ৫০০ ডাক্তার-নার্স নিচ্ছে রাজ্য

করোনা আক্রান্ত বেলেঘাটা থানার আধিকারিক সহ পরিবারের ৬ সদস্য, আইডিতে এখন চিকিৎসধীন

দেহ রাখার জায়গা না থাকায় ডিপ ফ্রিজ বসছে মেডিকেলের মর্গে, মৃতদেহ 'ম্যানেজমেন্ট'-এ নিয়োগ অ্যাসিস্ট্যান্ট

কোভিড পজিটিভ হয়ে মৃত্য়ু প্রখ্যাত ইতিহাসবিদ হরিশঙ্কর বাসুদেবনের