করোনা যুদ্ধে সব চেয়ে প্রথম সারিয়ে দাড়িয়ে শহরের পুলিশ। নিজেদের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে শহরকে ক্রমাগত করোনা মুক্তের কাজের ঝাপিয়ে পড়েছেন। কিন্তু ফের সেই কলকাতা পুলিশে ফের করোনার থাবা।  এবার করোনায়  আক্রান্ত হয়েছেন নিউ মার্কেট থানার এক সাব ইনস্পেক্টর। 

 আরও পড়ুন, 'যত সিট তত যাত্রী'তে রাজি নয় মালিকরা, ভাড়া বৃদ্ধির দাবিতে কলকাতায় নামছে না বেসরকারি বাস

সূত্রের খবর খবর, রবিবার সকালে নিউ মার্কেট থানার ওই সাব ইনস্পেক্টর তাঁর করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট হাতে পান। জানা গিয়েছে, বেশ কিছুদিন ধরে তাঁর স্ত্রী ও মেয়ে জ্বরে ভুগছিলেন। এরপর গত শুক্রবার কাজে যোগ দেন তিনি। কিন্তু অসুস্থতার কারণে তাড়াতাড়ি ছুটি নিয়ে বাড়ি চলে যান। শনিবার তিনি করোনা পরীক্ষা করান। রবিবার সকালে রিপোর্ট হাতে পেতেই জানতে পারেন, তিনি এবং তাঁর স্ত্রী দুজনেই করোনা পজিটিভ। এই খবর প্রকাশ্য়ে আসতেই চাঞ্চল্য দেখা দেয় নিউ মার্কেট থানায়। গত কয়েকদিন তাঁর সংস্পর্শে আসা পুলিশকর্মীদের কোয়ারেন্টাইনে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে।

আরও পড়ুন, বেলেঘাটা আইডি-র কর্মী আবাসনে নতুন করে আক্রান্ত আরও ৪, উদ্বিগ্ন স্বাস্থ্য় দফতর

উল্লেখ্য়,  প্রসঙ্গত, কয়েকদিন আগে গড়ফা থানার অ্যাসিস্ট্যান্ট সাব ইনস্পেক্টরের মৃত্যু ঘিরে বিক্ষোভ হয় থানার ভিতরেই। গত সোমবার সকালেই ওই এএসআইয়ের মৃত্যু হয়। এদিকে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন বিধান নগর পুলিশের এক মহিলা কনস্টেবল। ওই কনস্টেবল বিধান নগর উত্তর থানায় কর্মরত ছিলেন।  অপরদিকে কলকাতা পুলিশের কর্মীরাও একের পর এক করোনায় আক্রান্ত হয়ে চলেছেন। মানিকতলা থানার সাব ইন্সপেক্টর, পার্ক স্ট্রিট থানার স্পেশাল ব্রাঞ্চের পুলিশ কর্মী, জোড়াবাগান ট্রাফিক গার্ডের সার্জেন্ট, বউবাজার থানার এক শীর্ষ আধিকারিক, প্রগতি ময়দান থানার ওসি এর প্রত্য়েকেই করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। একের পর এক করোনা আক্রান্তে খবরে উদ্বিগ্ন এবার পুলিশ প্রশাসনও।

 

 

রাজ্য়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্য়া ছাড়াল ৫০০০, একদিনে আক্রান্ত ৩১৭ 

 করোনা মোকাবিলায় বড়সড় উদ্য়োগ, পরিষেবা বাড়াতে ৫০০ ডাক্তার-নার্স নিচ্ছে রাজ্য

করোনা আক্রান্ত বেলেঘাটা থানার আধিকারিক সহ পরিবারের ৬ সদস্য, আইডিতে এখন চিকিৎসধীন

দেহ রাখার জায়গা না থাকায় ডিপ ফ্রিজ বসছে মেডিকেলের মর্গে, মৃতদেহ 'ম্যানেজমেন্ট'-এ নিয়োগ অ্যাসিস্ট্যান্ট

কোভিড পজিটিভ হয়ে মৃত্য়ু প্রখ্যাত ইতিহাসবিদ হরিশঙ্কর বাসুদেবনের