মাঝে মধ্যেই বেড়িয়ে পড়া পছন্দ যাঁদের, তাঁদের পক্ষে কমদিনের ছুটিতে জায়গা খুঁজে পাওয়া বেজায় দুষ্কর। এমনই এক পরহিস্থিতিতে স্বল্প খরচে কীভাবে পরিকল্পনা করে ফেলবেন, তারই হদিশ রইল এবার। প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের সঙ্গে অরণ্য, পাখি, ধর্ণার মেলবন্ধন হল হাজারিবা-ঘাটশিলা ট্রিপ। কয়েকদিনের ছুটিতে বেড়িয়ে আসুন এই জায়গা থেকে।

কী দেখবেনঃ হাজারিবাগ অঞ্চলের মূল আকর্ষণই হল এখানকার অরণ্য। জাতীয় উদ্দানের টানে অনেকেই পৌঁছে যান হাজারিবাগ। কপাল ভালো থাকলে দেখা মিলতে পারে বাঘ, হরিণ, প্যান্থার শজারুর। মোটের ওপর রয়েছে দশটি ওয়াচটাওয়ার। এখান থেকে ৪ কিলোমিটারের মধ্যে রাঁচি-পটনা রোডের মানেই রয়েছে পিকনিক স্পট। এখানে দেখা যায় উষ্ণপ্রস্রবণ, সুরজ কুণ্ড। এছাড়াও রয়েছে ভদ্রকালী মন্দির।  এই অঞ্চলের মধ্যে সব থেকে বেশি যা নজর কাড়ে তা হল কানারি হিল। 

কীভাবে যাবেনঃ কলকাতায় থেকে যেতে হলে হাওড়া থেকে রয়েছে একাধিক ট্রেন। দুন এক্সপ্রেস, হাওড়া দিল্লি কালকা মেল, শিয়ালদহ থেকে রয়েছে ট্রেন, সঙ্গে বাবুঘাট থেকে বাসও ছাড়ে। ট্রেনে যেতে সময় লাগে মোট ছয় ঘন্টা। 

কোথায় থাকবেনঃ ঝাড়খণ্ড ট্যুরিজমের কমপ্লেক্স, রয়েছে এছাড়াও অনেক হোটেল। খরচ ১০০ থেকে ১৫০০ টাকা। আগে থেকে বুকিং করে যাওয়াই ভালো। 

খরচ কতঃ খরচ খুব একটা বেশি নয়। মাথাপিছু ৫৫০০ হাজার টাকা বরাদ্দ রাখলেই ঘুরে আসা যাবে এই জায়গা থেকে। যাওয়ার জন্য সঠিক সময় হল মার্চ থেকে অক্টোবর।