প্রয়াত মিও আমোরের কর্ণধার অর্ণব বসু। দীর্ঘদিন ক্য়ানসারের সঙ্গে লড়াই এর পর শহরের একটি হাসপাতালে বছর পয়ষট্টির অর্ণব বসুর মৃত্যু হয়। তাঁর এক ছেলে এক মেয়ে  এবং স্ত্রীকে নিয়ে সুখী পরিবারে আচমকাই ছন্দ পতন ঘটে। 

আরও পড়ুন, তিনতলার ছাদ থেকে ছেলেকে বাঁচাতে ঝাঁপ বাবার, কী পরিণতি হল ৬ বছরের শিশুর

বৃহস্পতিবার দুপুরেই শেষ নিঃশ্বাস ত্য়াগ করেন জনপ্রিয় কেক-পেস্ট্রির রিটেল চেন, মিও আমোরের কর্ণধার অর্ণব বসু।  ১৯৮৮ সালে, অর্ণব বসু মুম্বাই থেকে কলকাতার বাজারে মনজিনিসের কেক নিয়ে আসেন। এরপর ১৯৮৯ সালে, তিনি কসবা ইন্ডাস্ট্রিয়াল এস্টেটে ৮ কাঠা জমির উপরে তিনি কেক তৈরি কারখানাটি তৈরি করেন।  ২০১৫ সালে মনজিনিসের  ব্যবসা ভাগাভাগি হয়ে যাওয়ার পরে, তিনি মিও আমোরের ব্র্যান্ডের রিটেল চেন এর শুরু করেছিলেন। মিও আমোরে গোটা পশ্চিমবঙ্গ এবং ওড়িশার বিভিন্ন অঞ্চলে ৩০০ টিরও বেশি দোকান ছড়িয়ে আছে। এই সফল ব্যবসায়ী উইঙ্কিসের ব্র্যান্ড নামে প্যাকেজড কনফেকশনারিও শুরু করেছিলেন।

আরও দেখুন, করোনা রোগী ধাওয়া করায় ছুট মেরে পালাল পুলিশ, দেখুন ভিডিও


বর্তমানে মিও আমোরের মোট ব্যবসার আর্থিক পরিমাণ প্রায় ৫০০ কোটি টাকা।  ২০০০-এর বেশি কর্মী এই সংস্থায় কাজ করে। তাঁর ছেলে এবং মেয়ে উভয়েই বিদেশে কর্মরত। এদিকে বাবার এই বিশাল বড় ব্য়বসায় তাঁরা কেউই যুক্ত নয়। তাই মিও আমোরের এই এত বড় ব্য়াবসা  তিনি পুরোপুরি পেশাদারদের হাতেই ছেড়ে দিয়েছিলেন।

 

 

  মৃত্যুর পর ২ দিন বাড়ির ফ্রিজে করোনা দেহ, অভিযোগ 'সাহায্য মেলেনি স্বাস্থ্য দফতর-পুরসভার'

 করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু এক সেনা কর্তার, ফোর্ট উইলিয়ামের শোকের ছায়া

  অঙ্গপ্রত্যঙ্গ বিকলের পরও কোভিড জয়ী ৫৪-র দুধ ব্যবসায়ী, শহরকে দিলেন এক সমুদ্র আত্মবিশ্বাস

কোভিড রোগী ফেরালেই লাইসেন্স বাতিল, হাসপাতালগুলিকে হুঁশিয়ারি রাজ্য়ের

 কলকাতায় একদিনে চিহ্নিত প্রায় ২০০ বাড়ি, কনটেইনমেন্ট জোন বৃদ্ধির কারণ বললেন মুখ্যসচিব

করোনা আক্রান্ত নিজাম প্যালেসের এক সিবিআই আধিকারিক, স্যানিটাইজ করা হল পুরো অফিস

করোনা আবহে সুরজিৎ কর পুরকায়স্থের প্রাক্তন স্ত্রী-শাশুড়ির দেহ উদ্ধার, তদন্তে পুলিশ