লকডাউনে  রোজগার হারিয়েছেন অনেকেই। কিন্তু এই কঠিন সময়ে চাকরি গেলেও বিলাসবহুল জীবন ছাড়তে ইচ্ছে হয়নি  পেশায় তথ্য প্রযুক্তি সংস্থার কর্মী রনিতের।  একাধিক নারীসঙ্গ পেতে অপহরণের ফাঁদ পাতলেন  বছর সাতাশের রনিত দে। 

আরও পড়ুন, কলকাতার সেরা ৭ স্ট্রিট ফুড, যা না খেলে জীবন বৃথা, রইল হদিশ


লকডাউনে চাকরি হারিয়ে  অপহরণের ফাঁদ পাতলেন  পেশায় তথ্য প্রযুক্তি সংস্থার কর্মী  রনিত দে। নিজের মোবাইল থেকে বাড়িতে ফোন করে চাইলেন পাঁচ লক্ষ টাকা মুক্তিপণ।  কিন্তু শেষ অবধি বিলাসবহুল জীবন আর হল না। শ্রীঘরই এখন তাঁর আপাতত ঠিকানা। পুলিস সূত্রে খবর,  পেশায় তথ্য প্রযুক্তি সংস্থার কর্মী নিমতার ওলাইচন্ডী তলার বাসিন্দা বছর সাতাশের রনিত দে একাধিক নারীর সঙ্গে জীবনযাপন করতেন। লকডাউনে চাকরি চলে যাওয়ায় অর্থাভাব দেখা দেয়। এরই মধ্যে বাবা রবিন দে সরকারি চাকরি থেকে অবসর নেন। বাবার থেকে টাকা নিয়ে নিজের বিলাসবহুল জীবনযাপন বজায় রাখতে অপহরণের নাটক ফাঁদে রণিত। রনিত বাড়িতে কখনও পাঁচ লক্ষ টাকা, কখনও ২ লক্ষ টাকা মুক্তিপণ চাইতে থাকে। 

 

 

আরও পড়ুন, 'মাথায় করোনা', শিক্ষক দিবসে দিলীপকে আক্রমণ ফিরহাদের

এদিকে নিমতা থানায় খবর যেতেই তদন্তে নামে পুলিশ। মোবাইলের টাওয়ার লোকেট করে জানতে পারে রাজারহাট-নিউটাউনের একটি হোটেলে রয়েছেন রনিত। মোবাইল টাওয়ার লোকেট করে নিউটাউনের বড় হোটেলের রুমে একাধিক নারীর মাঝ থেকে গ্রেফতার করা হয় তাঁকে। যদিও এ বিষয়ে পরিবারের সদস্যরা মুখ খুলতে চাননি।

 

 

         

 

কোভিড আক্রান্তের ফ্ল্য়াটে ঝুলল তালা, বিপাকে পরিবার, রইল করোনা ক্রাইমের সাতকাহন

কোভিড রোগী ভর্তিতে ৫০ হাজার টাকার বেশি নেওয়া যাবে না, নয়া নির্দেশিকা জারি রাজ্যের

ভয় নেই করোনায়, মেডিক্য়ালের ৪ তলার কার্নিশে পা দোলাচ্ছে রোগী

ভুয়ো টেস্টের ফাঁদে পড়ে করোনায় মৃত্যু এক ব্য়াক্তির, গ্রেফতার প্রতারণা চক্রের ৩ জন

করোনায় ফের ১ এসবিআই কর্মীর মৃত্য়ু, মৃতের পরিবারকে চাকরি দেওযার দাবিতে ব্যাঙ্ক কর্মীরা