রেশন দুর্নীতি নিয়ে রাজ্যের সঙ্গে রাজ্যপাল সংঘাত জারি রয়েছে। এবার মুগ-মুসুরের বদলে ছোলা-অড়হর ডাল পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়ে অভিযোগ জানিয়েছেন  খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। পাশাপাশি কংগ্রেস নেতা বলেন, রাজ্যেবাসী যে ডাল খায় সেই ডাল পাঠানো উচিত কেন্দ্রীয় সরকারের।  রাজ্যপালের টুইটে খাদ্য়ের পরিসংখ্যান ঠিক নয় বলে দাবি করেছেন খাদ্যমন্ত্রী। 

আরও পড়ুন, সোমবার তাপমাত্রা নেমে ফিরল স্বস্থি, বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টি-ঝড়ের পূর্বাভাস কলকাতা ও দক্ষিণবঙ্গে


উল্লেখ্য়, ৯ তারিখ শনিবার রাজ্য়পাল জগদীপ ধনখড় টুইটে লেখেন যে, 'বিনামূল্যে ৪,৭৮,০০০ মেট্রিক টন চাল ছাড়াও কেন্দ্রীয় সরকার বিনামূল্যে ১২৮০০ মেট্রিক টন ডাল পাঠিয়েছেন, যার মধ্যে পশ্চিমবঙ্গ ১০৮০০ মেট্রিক টন ইতিমধ্যেই পেয়ে গেছে। বাকি মুগ ডালের সরবরাহ আগামী সপ্তাহে শুরু হয়ে মে মাসের শেষের মধ্যে সম্পূর্ণ হয়ে যাবে।' আর এখান থেকেই ফের সংঘাত শুরু হয়। রাজ্যপালের এই মন্তব্য ঠিক নয় বলে দাবি করেন খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। তিনি বলেন, 'রাজ্যপালের এই পরিসংখ্যান ঠিক নয়। না জেনেই প্রতিদিন সকালবেলা ট্যুইট করছেন রাজ্যপাল।' এবং মুগ-মুসুর ডালের বদলে শুধুই ছোলা-অড়হর ডাল পাঠানোর  সিদ্ধান্ত নিয়েও তিনি অভিযোগ তোলেন।

 

 

আরও পড়ুন, ট্রপিক্যালে আরও ২ জনের শরীরে মিলল করোনার জীবাণু, কোয়ারেন্টিনে ৪০ স্বাস্থ্যকর্মী

অপরদিকে,  রেশন দুর্নীতি নিয়ে রাজ্যের বিরুদ্ধে সরব বিরোধীরাও। বাম নেতা সুজন চক্রবর্তী দাবি জানিয়েছেন, 'রাজ্য নিজে দিতে পারছে না, সে ব্যাপারে কিছু নেই। কেন্দ্রকে দুষতেই ব্যস্ত রাজ্য।' অপরদিকে কংগ্রেস নেতা প্রদীপ ভট্টাচার্য বলেন, এই রাজ্যের মানুষ যে ডাল খায় সেই ডাল পাঠানো উচিত কেন্দ্রীয় সরকারের।

 

 

কোভিড হাসপাতালে স্বাভাবিক মৃত্য়ুতেও পরিবার চাইলে সৎকার করবে কলকাতা পৌরসভা, জানালেন ফিরহাদ

করোনা আক্রান্ত প্রাণ হারালেন এবার রাজ্যের এক আইনজীবী, এদিকে আইসোলেশনে তাঁর স্ত্রী

কোভিড পজিটিভ হয়ে মৃত্য়ু প্রখ্যাত ইতিহাসবিদ হরিশঙ্কর বাসুদেবনের

 বেহালা হাসপাতালের প্রসুতির শরীরে মিলল এবার করোনার জীবাণু, কেপিসি-র ৩ রোগীর রিপোর্টও পজিটিভ

রোগী ফেলে পালাতে পারল না অ্যাম্বুল্যান্স, পিপিই পরা স্বাস্থ্য়কর্মীদেরকে তীব্র প্রতিবাদ নাকতলাবাসীর