লকডাউন চলাকালীন রাস্তায় বেরিয়ে, পুলিশের লাঠির আঘাতে এক ব্যক্তির মৃত্যুর অভিযোগ উঠল হাওড়ায়। ঘটনাটি ঘটেছে হাওড়ার সাঁকরাইলের বাণীপুর এলাকায়। বছর বত্রিশের মৃত ওই ব্য়ক্তির নাম লাল স্বামী। যদিও লাঠিচার্জের কথা অস্বীকার করেছে পুলিশ। প্রশাসনের দাবি, হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ওই যুবকের।

আরও পড়ুন, কলকাতায় করোনায় আক্রান্ত আরও ১, রাজ্য়ে সংখ্যা বেড়ে এবার ১০

মৃতের স্ত্রীর অভিযোগ, তাঁর স্বামী দুধ আনতে বেরিয়েছিলেন। বুধবার সন্ধেয় রাস্তায় তখন জমায়েত নিয়ন্ত্রণ করতে গিয়ে লাঠিচার্জ শুরু করে পুলিশ। লাঠির ঘায়ে লাল স্বামী নামের ওই ব্য়ক্তি আহত হন বলে অভিযোগ।   এরপর ওই যুবককে স্থানীয়রা নিয়ে যান হাজি এসটি মল্লিক হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

আরও পড়ুন, কথা না শুনে দেদার পেটাচ্ছে পুলিশ, মুখ্য়মন্ত্রীর কাছে গেল চিঠি

অপরদিকে, হাওড়ার ডিসি সাউথ রাজ মুখোপাধ্যায়  বলেছেন, 'ওই ব্যক্তি অসুস্থ ছিলেন। হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তাঁর মৃত্যু হয়েছে।' লাঠিচার্জের কথাও অস্বীকার করেন ওই আইপিএস। আগেই সরকারের তরফে ঘোষণা করা হয়েছিল লকডাউন চলাকালীন রাস্তায় ভিড় জমালেই শাস্তি পেতে হবে। জরুরী পরিষেবা ছাড়া মোটেই যেন কেউ বাইরে না বের হন। আর লকডাউনের আইন লঙ্ঘন করে ইতিমধ্য়েই   কলকাতাতে ২০০০ বেশি গ্রেফতারের ঘটনা ঘটেছে। তবে এবার পুলিশের মারে মৃত্যুর অভিযোগ উঠল হাওড়ায়।

আরও পড়ুন, এবার করোনা হাসপাতাল রাজারহাটে, থাকছে একাধিক চিকিৎসক সহ ৫০০টি বেড